বিকাল ০৩:২৬, বৃহস্পতিবার, ১৯ মে, ২০২২, ৫ জ্যৈষ্ঠ

নেত্রকোণায় ডিজিটাল সেবা: হয়রানী কমছে সেবা গ্রহীতা নারীদের

জেলা প্রশাসন থেকে সেবাগ্রহীতা নারীদের হয়রানী কমাতে একটি অ্যাপস তৈরি করা হয়েছে। বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা উইমেন্স কর্ণার নামে নারীদের জন্য বিশেষায়িত অনলাইন প্লাটফর্ম তৈরি করা হয়। বিশ্বের যে কোনো স্থান থেকে ‘ডিজিটাল নেত্রকোনা.ওআরজি’ নামের ওই সাইটে মুঠোফোন কিংবা কম্পিউটার থেকে নির্দিষ্ট ফরম পূরণ করে আবেদন করা যাবে।

বিশেষ প্রতিনিধি : তাসলিমা আক্তার ঝুমুর একজন নারী উদ্যোক্তা। নেত্রকোণা শহরের নাগড়া এলাকার বাসিন্দা।দীর্ঘদিন ধরেই তিনি একটি বুটিক হাউজ চালাতেন। করোনার কারণে ব্যবসা বন্ধ করে তিনি পড়েছিলেন বিপাকে। হঠাৎ তিনি খোঁজ পান ‘ডিজিটাল নেত্রকোণা.ওআরজি’ নামের একটি অনলাইন প্লাটফর্মের। সাইটটিতে ঢুকে আর্থিক ঋণের জন্য একটি আবেদন করেন তিনি চলতি বছরের ৩ অক্টোবর। ওই দিনই মুঠোফোনে একটি খুদে বার্তা পান তিনি। জেলার বিসিক কার্যালয় থেকে পাঁচ দিনের একটি প্রশিক্ষণের ডাক পান ঝুমুর। এর ঠিক ৬ দিন পর এক লক্ষ টাকা ঋণ পান ঝুমুর। তার মতো সেবা পেয়েছেন সহস্্রাধিক নারী।
 

সূত্র জানায়, জেলা প্রশাসন থেকে সেবাগ্রহীতা নারীদের হয়রানী কমাতে একটি অ্যাপস তৈরি করা হয়েছে। বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা উইমেন্স কর্ণার নামে নারীদের জন্য বিশেষায়িত অনলাইন প্লাটফর্ম তৈরি করা হয়। বিশ্বের যে কোনো স্থান থেকে ‘ডিজিটাল নেত্রকোনা.ওআরজি’ নামের ওই সাইটে মুঠোফোন কিংবা কম্পিউটার থেকে নির্দিষ্ট ফরম পূরণ করে আবেদন করা যাবে। নারী শিক্ষার্থী, নারী উদ্যোক্তা, আত্মকর্মী, স্ট্রার্টআপ, বাল্যবিবাহ ও যৌন হয়রানীর শিকার নারী, স্বাস্থ্য সেবা প্রার্থী নারী, নির্যাতিতা নারী, ঋণ সহায়তা প্রার্থী নারী, আর্থিক সহায়তা প্রার্থী নারী, অন্যান্য ক্ষেত্রে সেবা প্রার্থী নারী ও ভূমি সংক্রান্ত সেবা পেতে ওই সাইটের আবেদন করতে পারবেন।

নেত্রকোণা শহরের সাতপাই চক্ষুহাসপাতাল এলাকার বাসিন্দা আলপনা বেগম বলেন, ‘আমি হিমু পাঠক আড্ডা নামের একটি সংগঠন করি। ‘ডিজিটাল নেত্রকোণা.ওআরজি’ নামের ওই সাইডে আর্থিক সহায়তার জন্য আবেদন করে ২৪ ঘণ্টার মধ্যে ১০ হাজার টাকা আর্থিক অনুদান পেয়েছি। সাধারণ নিয়মে আবেদন করলে ঘুরতে হতো, হয়রানী হতে হতো। কিন্তু অনলাইনে আবেদনটি করে সঙ্গে সঙ্গে সারা পেয়েছি। সহযোগীতাও পেয়েছি। সাইটটি তৈরীর করার ফলে নারীরা সেবা পেতে খুব সুবিধা হয়েছে।’

নেত্রকোণা সদরের অনন্তপুর গ্রামের নারী উদ্যোক্তা কামরুন্নাহার লিপি বলেন,‘ নারীদের নানা ভাবে হয়রানী করা হয়। সংসার, কর্মক্ষেত্র সহ বিভিন্ন ভাবে নারীদের হেনস্তা করা হয়। এখন যেকোনো নারী ঘরে বসেও তার সমস্যার কথা প্রশাসনকে জানানো যাচ্ছে। আবেদনের সাথে সাথে সাড়া পাওয়া যাচ্ছে। যারা বিচার প্রার্থী তারা বিচার পাচ্ছেন, যারা সাহায্য প্রার্থী তারা সাহায্য পাচ্ছেন। যাদের ঋণ দরকার তারা ঋণও পাচ্ছেন। তিনি আরো বলেন, বিষয়টি সারা দেশে ছড়িয়ে দেয়া দরকার। তাহলে এর সুফল সবাই ভোগ করতে পারবে।’

জেলা প্রশাসক কাজি মোঃ আবদুর রহমান বলেন, ‘তৃণমূল পর্যায়ের নারীরা ঘরে বসে সেবা পেতে এই উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। চলতি বছরের মার্চ মাসে আমরা এপসটি তৈরী করেছি। এরিমধ্যে জেলার ১২৫৩ জন নারী আবেদন করেছেন। এরমধ্যে ২৮ টি ফোকাল পয়েণ্টের মাধ্যমে ৯১৬ টি আবেদন নিষ্পত্তি করা হয়েছে। যে নারীরা সরকারের সুবিধা পান না। তারা এই এপসের মাধ্যমে আবেদন করলে দ্রুত সময়ে হয়রানী ছাড়া সেবা পাবেন।’

 জেলা প্রশাসন সম্মেলন কক্ষে জেলা প্রশাসক কাজি মোঃ আবদুর রহমানের সভাপতিত্বে সাংবাদিক সম্মেলনে বক্তব্য রাখেন,অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্টেট মোঃ সুহেল মাহমুদ, জেলা প্রশাসক (সার্বিক) আব্দুল্লাহ আল মাহমুদ, জেলা বিসিকের উপপরিচালক আক্রাম হোসেন, জেলা প্রেসক্লাবের সহসভাপতি হায়দার জাহান চৌধুরী, সাংবাদিক শ্যামলেন্দু পাল, সঞ্জয় সরকার, কামাল হোসাইন, পল্লব চক্রবর্তী ও আনিসুর রহমান প্রমুখ।

 

 

Share This Article


৩১ বছর পর সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশে মুক্তি পাচ্ছেন রাজীব গান্ধীর হত্যাকারী

মানবতাবিরোধী অপরাধে ৩ জনের ফাঁসির আদেশ

এবার মিলল আরেক অভিনেত্রীর ঝুলন্ত মরদেহ

কঙ্গনা রানাউত

দুর্ধর্ষ সিক্রেট এজেন্টের ভূমিকায় কঙ্গনা

দেশজুড়ে দাবদাহ, থাকবে আরও ‍দুইদিন

মেয়ের জন্য ৩৬ বছর ধরে পুরুষ সেজে আছেন তিনি

সিলেটের ৫৩৬ কিলোমিটার সড়ক ডুবে গেছে

৭ তলা থেকে লাফ দিয়ে বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীর আত্মহত্যা

মঞ্চ মাতাতে ঢাকায় আসছেন শিল্পা শেঠি

এক জাহাজ পেট্রল কেনার টাকাও নেই শ্রীলঙ্কার

১৫ বছরের ইতিহাসে বিরল ঘটনার সাক্ষী হল আইপিএল

পল্লবীর অনুপস্থিতিতে ফ্ল্যাটে আসত অন্য মেয়ে!

রাশিয়া-ইউক্রেনে যুদ্ধ বিশ্বব্যাপী দুর্ভিক্ষ ডেকে আনবে

হজ নিবন্ধনের সময় বাড়ল ২২ মে পর্যন্ত

বন্যায় দুর্ভোগে নগরবাসী, কবে ফিরবেন মেয়র আরিফ