রাত ০৩:০৮, বুধবার, ১৮ মে, ২০২২, ৪ জ্যৈষ্ঠ

সৈয়দ আলীর পেশা মানুষের কান পরিষ্কার

প্রায় ৪০ বছর ধরে মানুষের কান পরিষ্কারের কাজ করছেন সৈয়দ আলী ভূঁইয়া। সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত এলাকার বিভিন্ন হাট-বাজারে, অফিস-আদালতে ঘুরে, মানুষের কান পরিষ্কার করে যা আয় করেন সেই টাকায় সংসার চলে তার।

সৈয়দ আলী ভূঁইয়া ফরিদপুরের নগরকান্দা উপজেলার কোদালিয়া শহীদনগর ইউনিয়নের মাঠবালিয়া গ্রামের মৃত বারেক ভূঁইয়ার ছেলে। নগরকান্দা বাজারসহ এলাকার বিভিন্ন বাজার এবং অফিস আদালতে ঘুরে ঘুরে মানুষের কান পরিষ্কার করাই তার একমাত্র পেশা।

দরিদ্র পিতা মাতার সংসারে অভাব অনটন থাকায় লেখাপড়া তেমন করতে পারেনি সৈয়দ আলী। মাত্র ১৫ বছর বয়সেই সংসারের হাল ধরতে গ্রামে ঘুরে ঘুরে চুড়ি ফিতা বিক্রি শুরু করেন। একপর্যায়ে রংপুর জেলায় চলে যান। তিনি ১৯৭৯ সালে সেখানে আব্দুল মজিদ মিয়া নামে এক কলেজ শিক্ষকের কাছ থেকে কান পরিষ্কারের শিক্ষা নেন। সেখানে ৩ বছর প্রশিক্ষণ নিয়ে নিজেই শুরু করেন কান পরিষ্কার করার কাজ। সেই থেকে এ পেশা চালিয়ে যাচ্ছেন সৈয়দ আলী। এরপর থেকেই মানুষের কান পরিষ্কারের কাজ করছেন।

নগরকান্দা সদর বাজারে কথা হয় সৈয়দ আলী ভূঁইয়ার সঙ্গে। তিনি জানান, মানুষের কান পরিষ্কার করে, প্রতিদিন তিন থেকে চারশ টাকা আয় করেন। জমিজমার মধ্যে আছে মাত্র আড়াই শতাংশ বাড়িভিটা। সেখানে ছোট একটি দোচালা ঘর রয়েছে। তার চার মেয়ের বিয়ে হয়ে যাওয়ায়, তারা স্বামীর সংসার করছেন। দুই ছেলে বিয়ে করে তাদের নতুন সংসার শুরু করেছেন। কিন্তু বাড়িতে শুধুমাত্র একটি দোচালা ঘর থাকায়, সেই ঘরেই সবাই মিলে বসবাস করতে হচ্ছে। তার ছোট ছেলে বিপ্লব ভূঁইয়া স্থানীয় একটি বিদ্যালয়ে নবম শ্রেণিতে লেখাপড়া করছে।

সৈয়দ আলী বলেন, আমি প্রায় ১০ বছর ধরে হার্টের রোগে ভুগছি। আমাকে প্রতিদিন ৫০-৬০ টাকার ওষুধ খেতে হয়। মানুষের কান পরিষ্কার করে যা আয় হয় তা দিয়ে ঠিক মতো সংসারই চালাতে পারি না। তাই বাধ্য হয়ে ধার দেনা করে নিজের ওষুধ কিনতে হচ্ছে। আমি খুবই কষ্টে সংসার চালাচ্ছি। সরকারি ঘর এবং কোনো আর্থিক সহায়তা আমি পাচ্ছি না।

Share This Article


১০০ টাকা ছাড়িয়েছে খোলা বাজারে ডলারের দাম

আবারো বাড়লো স্বর্ণের দাম

বিশ্বকাপের আগে নিউজিল্যান্ডে বাংলাদেশের ত্রিদেশীয় সিরিজ

নর্থ সাউথের ১০টি বিলাসবহুল গাড়ি বিক্রির নির্দেশ

পল্লবীর মৃত্যু: অভিনেত্রীর প্রেমিক গ্রেপ্তার

প্লাস্টিক সার্জারি করাতে গিয়ে ২১ বছর বয়সী অভিনেত্রীর মৃত্যু

বড়বোনের বাড়িতে বেড়াতে গিয়ে গণধর্ষণের শিকার তরুণী

আমাকে হানিমুনে গিয়েই মেরে ফেলতে চেয়েছিল :

করোনা নিয়ন্ত্রণে এবার সেনা নামাল উত্তর কোরিয়া

‘যুদ্ধ বন্ধের’ পথ বন্ধ হয়ে গেছে: রাশিয়া

হাসপাতালে ভর্তি বিএনপি নেতা মির্জা আব্বাস

দাপুটে শেষ টাইগারদের!

পি কে হালদারকে হস্তান্তরে সময় লাগবে : দোরাইস্বামী

পদ্মা সেতুর চূড়ান্ত টোল নির্ধারণ

আরও ১০ দিনের রিমান্ডে পি কে হালদার