সকাল ১১:০২, বুধবার, ২৬ জানুয়ারি, ২০২২, ১২ মাঘ

রাষ্ট্রপতির সঙ্গে সংলাপ শেষে যা বললেন ইনু

নির্বাচন কমিশন (ইসি) গঠন নিয়ে চলমান সংলাপের দ্বিতীয় দিনে বঙ্গভবনে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ সঙ্গে আলোচনা করেছে জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল (জাসদ)। বুধবার (২২ ডিসেম্বর) বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন দলের সভাপতি হাসানুল হক ইনু।

 

তিনি বলেন, এই আলোচনা  গ্রহণযোগ্য দক্ষ নির্বাচন কমিশন উপহার দিতে সাহায্য হবে। আমরা আরও বলেছি যে, সংবিধানের নির্দেশ অনুযায়ী একটি আইনি কাঠামো না থাকায় তুলনামূলকভাবে একটি অনুসন্ধান কমিটির মধ্য দিয়ে নির্বাচন কমিশন গঠন করার উদ্যোগটা ভালো।


জাসদের এ নেতা বলেন, তিন নম্বর কথা বলেছি, পাঁচ বছর পর পর এ নির্বাচন কমিশন গঠন নিয়ে যে বিব্রতকর অবস্থা সৃষ্টি হয়, তা থেকে স্থায়ী সমাধানের জন্য রাষ্ট্রপতি যেন উদ্যোগ গ্রহণ করেন। ভবিষ্যতে একটা আইনি কাঠামো তৈরি করার জন্য উনি যেন সরকারকে উপযুক্ত পরামর্শ এবং দিক নির্দেশনা দেন। তারপর আমরা বলেছি সার্চ কমিটি ও অনুসন্ধান কমিটি সাংবিধানিক সংস্থা থেকে হওয়ায় বাঞ্ছনীয়।

এ সময় সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, যেহেতু রাষ্ট্রপতি সংবিধানের রক্ষক, সেহেতু সংবিধানের নির্দেশনা বাস্তবায়নের জন্য উনি একটা ভূমিকা রাখতে পারেন। আইন সংসদই করবে, সরকারই করবে, কিন্তু ওনাকে ভূমিকা রাখতে বলেছি। সরকারকে পরামর্শ দিতে বলেছি, সংবিধানের ১১৮ অনুচ্ছেদ বাস্তবায়নে যেন সরকার উদ্যোগ নেয়। রাষ্ট্রপতি এই উদ্যোগ নেওয়ার এখতিয়ার রাখেন। আমরা মনে করি, সব মহলকে বিব্রতকর পরিস্থিতি থেকে রেহাই দেওয়ার জন্য রাষ্ট্রপতি ভবিষ্যতের জন্য একটি আইনি কাঠামো তৈরি করে দেবেন।

এর আগে গত সোমবার জাতীয় সংসদে প্রধান বিরোধী দল জাতীয় পার্টির সঙ্গে আলোচনার মধ্য দিয়ে রাষ্ট্রপতির সংলাপের আনুষ্ঠানিকতা শুরু হয়। জাসদ ছাড়াও ক্ষমতাসীন ১৪ দলের আরও দুই শরিক সংলাপের আমন্ত্রণ পেয়েছে ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি (ন্যাপ) ও বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টি। এই দুই দল যথাক্রমে ২৬ ও ২৮ তারিখ বিকেলে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদের সঙ্গে দেখা করবে।

এছাড়াও আগামী ২৬ ডিসেম্বর সন্ধ্যা ৬টায় বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক দল (বাসদ), ২৭ ডিসেম্বর বিকেল ৪টায় তরীকত ফেডারেশন, সন্ধ্যা ৬টায় খেলাফত মজলিস, ২৯ ডিসেম্বর বিকেল ৪টায় বিএনএফ ও সন্ধ্যা ৬টায় ইসলামী ঐক্যজোট নেতাদের সঙ্গে সংলাপে বসবেন রাষ্ট্রপতি। তবে এখনো আওয়ামী লীগ, বিএনপিসহ অন্য নিবন্ধিত দলগুলোর সঙ্গে সংলাপের সময় চূড়ান্ত হয়নি।

রাষ্ট্রপতিকে সিইসি এবং অনধিক চারজন নির্বাচন কমিশনার নিয়োগের ক্ষমতা দেওয়া হয়েছে। গত কয়েকটি মেয়াদে রাষ্ট্রপতি ‘সার্চ কমিটি’র সুপারিশের ভিত্তিতে নির্বাচন কমিশন গঠন করেছেন। বর্তমান ইসির পাঁচ বছরের মেয়াদ শেষ হচ্ছে আগামী বছরের ১৪ ফেব্রুয়ারি। এ সময়ের মধ্যেই রাষ্ট্রপতি নতুন কমিশন গঠন করবেন, যাদের অধীনে অনুষ্ঠিত হবে দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন।

Share This Article


৭ দিন পর অনশন ভাঙলেন শাবিপ্রবির শিক্ষার্থীরা

আবিষ্কৃত হলো রসুলের (স.) মদিনায় হিজরতের যাত্রাপথ

ওমিক্রন ছড়িয়ে পড়া বিশ্ব অর্থনীতিতে নতুন শঙ্কা তৈরি হয়েছে: আইএমএফ

ফাইল ফটো

প্রাইভেট হাসপাতালে নিয়ে রোগীর সর্বনাশ করলো সরকারি ডাক্তার!

ফাইল ফটো

দুবাইয়ে বিশ্বের সর্ববৃহৎ পবিত্র কোরআন প্রদর্শন

কাঁচা মরিচের রসগোল্লা

রীতিমতো ঝড় তুলেছে কাঁচা মরিচের রসগোল্লা

ফাইল ফটো

৪৪তম বিসিএসের আবেদনের সময় বাড়ল এক মাস

ফাইল ফটো

কুসুম ফেলে দিয়ে শুধু ডিমের সাদা অংশ খাচ্ছেন! বিশেষজ্ঞরা কি বলছেন?

ফাইল ফটো

শাড়ির ফাঁকে উন্মুক্ত নাভি, ট্রেন্ডিং গানে ‘হট বম্ব’ উরফি!

ড. জাফর ইকবাল

শাবিপ্রবির শিক্ষার্থীদের অনশন জাফর ইকবালের অনুরোধে স্থগিত, চলবে আন্দোলন

ফাইল  ফটো

অডিটর নিয়োগের প্রশ্নফাঁসের মূল হোতা নোমান সিদ্দীকি

ফাইল ফটো

যৌতুক না পেয়ে বিকৃত যৌনাচার, স্বামী গ্রেপ্তার

ফাইল  ফটো

মিথ্যা তথ্য দেওয়ায় মিশা-জায়েদের বিরুদ্ধে মামলার হুমকি আলমগীরের

ফাইল ফটো

সিনেমার প্রচারে যাওয়া দীপিকার পোশাক নিয়ে ছি ছি

সিনিয়রকে থাপ্পর মেরে জাবির দুই ছাত্রী বহিষ্কার