সকাল ০৬:২৮, সোমবার, ১৭ জানুয়ারি, ২০২২, ৩ মাঘ

আর্জেন্টিনায় হবে গণহত্যার বিচার :

নিজ দেশে ফেরার আশা দেখছেন রোহিঙ্গারা !

রোহিঙ্গা পরিবার
রোহিঙ্গা পরিবার

বাংলাদেশে  আগমনের  চার বছর পর এখন পর্যন্ত  রোহিঙ্গারা নিজ দেশে ফিরতে না পারলেও অবশেষে ইউনিভার্সেল জুরিসডিকশন’ (সর্বজনীন এখতিয়ার) নীতি প্রয়োগের মাধ্যমে গণহত্যার বিচার ও রোহিঙ্গাদের মিয়ানমারে ফেরার সেই আশা তৈরি হয়েছে।

 

জানা গেছে, মিয়ানমারে সেনাবাহিনীর সেই গণহত্যার বিচারের বিষয়টি উঠছে আর্জেটিনার আদালতে। আন্তর্জাতিক আইন অনুসরণ করে এখানে প্রধান্য পাবে মিয়ানমার সেনাবাহিনীর বর্বরতার শাস্তি, সেই সাথে নিশ্চিত করা হবে রোহিঙ্গাদের অধিকার।

বিশ্বের যেকোনো স্থানে সংঘটিত গুরুতর অপরাধের বিচার করার যে অধিকার ‘ইউনিভার্সেল জুরিসডিকশন’ (সর্বজনীন এখতিয়ার) নীতিতে আছে তা প্রয়োগ হবে এই গণহত্যার বিচারের জন্য।

উল্লেখ্য ‘ইউনিভার্সেল জুরিসডিকশন’ আন্তর্জাতিক আইনে গুরুত্বপূর্ণ নীতি হিসেবে স্বীকৃত, যার প্রচলন শুরু হয় ১৯৪৯ সালে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময়। পরবর্তীতে ১৯৮৪ সালে এটি নির্যাতন বিরোধী সনদের মতো আন্তর্জাতিক অনেক গুরুত্বপূর্ণ সনদে স্থান পায়।

আর্জেন্টিনার আদালতে বিষয়টি উঠার এই সিদ্ধান্ত শুধু রোহিঙ্গাদের জন্যই নয়, বিশ্বের যেকোনো স্থানে নিপীড়িতদের জন্য আশার আলো দেখাবে বলে মনে করছেন আন্তর্জাতিক বিশ্লেষকরা।

যুক্তরাজ্যভিত্তিক রোহিঙ্গাদের সংগঠন বার্মিজ রোহিঙ্গা অর্গানাইজেশন ইউকের (ব্রুক) সভাপতি তুন খিন ২০১৯ সালের নভেম্বর মাসে প্রথমবারের মতো আর্জেন্টিনায় ওই মামলা শুরুর জন্য আবেদন করেছিলেন। মূলত এরপর থেকেই আর্জেন্টিনার আদালতের সিনিয়র জেনারেল মিন অং হ্লাইং ও বর্তমান নেতৃত্বের অনেক জ্যেষ্ঠ সদস্যসহ মিয়ানমারের সামরিক বাহিনীর বিরুদ্ধে এ মামলা শুরুর ঐতিহাসিক পদক্ষেপ নেয়।

এদিকে, আর্জেন্টিনার আদালতের এ সিদ্ধান্তকে ‘গেম চেঞ্জার’ বলছেন সাবেক পররাষ্ট্রসচিব ও রাষ্ট্রদূত এম শহীদুল হক। তিনি বলেন, আন্তর্জাতিক ন্যায়বিচার আদালত (আইসিজে), আন্তর্জাতিক ফৌজদারি আদালতের (আইসিসি) রায় যদি আমাদের প্রত্যাশা অনুযায়ী হয় তবে তা বড় ধরনের ‘গেম চেঞ্জার’ হবে। আইসিজেতে এরই মধ্যে অন্তর্বর্তী আদেশ আমাদের প্রত্যাশা অনুযায়ী চলে এসেছে।’

আইসিসি, আইসিজের সিদ্ধান্তগুলো নাগরিকত্বের অধিকারসহ রোহিঙ্গাদের দেশে ফিরে যাওয়ার পথ দেখাবে। আর্জেন্টিনার সিদ্ধান্ত এই প্রক্রিয়াকে আরো জোরালো করবে বলেও জানান শহীদুল হক।

Share This Article


 ‘সুর সপ্তক’

রাজধানীর অত্যাধুনিক ও দৃষ্টিনন্দন আন্ডারপাস ‘সুর সপ্তক’!

সাবেক বিচারপতি টিএইচ খান

সাবেক বিচারপতি টিএইচ খান আর নেই

ফাইল ফটো

ইরানের কয়েকটি শহরে ‘রহস্যময়’ বিস্ফোরণ!

 নোভাক জোকোভিচ

শেষ পর্যন্ত অস্ট্রেলিয়া ছাড়তেই হলো নোভাক জোকোভিচকে

ফাইল ফটো

যে কারণে বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ বিসিবির কোচ!

ফাইল ফটো

যুক্তরাষ্ট্রে জিম্মি ঘটনার নেপথ্যে পাকিস্তানি বিজ্ঞানী!

আইভী

আবারও জয়ী আইভী

ইসি সচিব মো. হুমায়ুন কবীর খোন্দকার

নাসিক নির্বাচনে ৫০ শতাংশ ভোট পড়েছে: ইসি সচিব

মীর আব্দুল হান্নান

বসিলায় অজ্ঞান পার্টির খপ্পরে এপিবিএন সদস্য

ফাইল ফটো

টিকার চতুর্থ ডোজ নেওয়ার পরও ইসরায়েলের অর্থমন্ত্রী করোনায় আক্রান্ত

ঘুমের অভাব ত্বকের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কমিয়ে দেয়

ঘুমের অভাব ত্বকের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কমিয়ে দেয়

ফাইল ফটো

আফগানিস্তানে মেয়েদের সব স্কুল খুলে দিচ্ছে তালেবান

ধর্মগুরু যতি নরসিংহানন্দ

ধর্মীয় সংখ্যালঘুদের গণহত্যার ডাক, ভারতের ধর্মগুরুর!

স্বামী রাকিবের সাথে চিত্রানায়িকা মাহি

নাম বদলালেন চিত্রনায়িকা মাহি

উপমহাদেশের কিংবদন্তি কণ্ঠশিল্পী লতা মঙ্গেশকর

ভক্তদের প্রার্থনা করতে বললেন লতা মঙ্গেশকরের চিকিৎসক