দুপুর ০২:৪৩, মঙ্গলবার, ২৪ মে, ২০২২, ১০ জ্যৈষ্ঠ

যে ড্রাইভিং শেখায় সেই অদক্ষ!

ফাইল ফটো
ফাইল ফটো

ফিটনেসবিহীন গাড়ি আর অদক্ষ চালক দিয়ে শেখানো হচ্ছে ড্রাইভিং ট্রেনিং স্কুলগুলোতে। যারা শেখাচ্ছেন তাদের কেউ মেকানিক কেউবা অন্য পেশার। দেওয়া হচ্ছে দক্ষ চালকের সার্টিফিকেটও।

 বছরের পর বছর এমন অনিয়ম চললেও মাসোহারা দেওয়ায় ব্যবস্থা না নেওয়ার অভিযোগ রয়েছে বিআরটিএ ও পুলিশের ট্রাফিক বিভাগের বিরুদ্ধে। অনিয়মের অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেওয়ার কথা জানিয়েছেন ডিএমপির মুখপাত্র।

 

খোদ রাজধানীতে লক্কড়ঝক্কড় গাড়ি দিয়ে চলছে দক্ষ চালক তৈরির প্রশিক্ষণ। ট্রেনিং কারে নেই লুকিং গ্লাস। কারও আবার সাইড লাইট নষ্ট। আবার যারা শেখাচ্ছেন তাদের কেউ মেকানিক কেউবা অন্য কোনো পেশার।

ড্রাইভিং ট্রেনিং স্কুলগুলো থেকে এভাবেই বছরের পর বছর গাড়ি চালানো শিখে সার্টিফিকেট নিয়ে রাস্তায় নেমে পড়ছেন অনেকে।

বিআরটিএ’র তথ্য অনুযায়ী, সারা দেশে ১৩৯টি ড্রাইভিং ট্রেনিং স্কুলের অনুমোদন রয়েছে। যদিও এর বাইরে অবৈধভাবে চলছে শতাধিক। প্রকাশ্যে কীভাবে চলছে এমন অনিয়ম। খোঁজ নিয়ে জানা যায়, সব ম্যানেজ করেই চলছে এমন অপকর্ম।

গোপন ক্যামেরার সামনে একজন বলেন, চায়ের দোকান করতে গেলেও তার পেছনে ব্যাকআপ লাগে। ব্যাকআপ ছাড়া কেউ এই জমানায় কোনও ব্যবসাই করতে পারবে না।

সড়ক নিরাপদ রাখতে নানা উদ্যোগ ও ব্যবস্থা নেওয়ার কথা বলে আসছে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষ। অথচ এমন অপকর্ম চোখে পড়ে না। কেন নেওয়া হচ্ছে না ব্যবস্থা, প্রশ্ন ছিল সংস্থাটির মুখপাত্রের কাছে।

বিআরটিএ-এর মুখপাত্র শেখ মোহাম্মদ মাহবুব-ই-রব্বানী বলেন, বেসরকারি পর্যায়ে যে স্কুলগুলো আছে, সেগুলো আসলেও মানসম্মত না। এর বাইরে অনুমোদিত কিছু সেন্টার আছে। আমরা এর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য তালিকা তৈরি করতেছি। ইতোমধ্যে আমরা মাঠ পর্যায়ে যে কর্মকর্তারা আছেন তাদের নির্দেশনা দিয়েছি, অনুমোদিত কতগুলো এ ধরনের ট্রেনিং সেন্টার আছে, তার একটা তালিকা দিতে। তালিকা তৈরি হয়ে গেলেই তালিকা অনুযায়ী তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেব।

নিয়ম ভেঙে সড়কে নামলেই জরিমানায় পড়তে হয় ট্রাফিক সার্জেন্টদের কাছে। অথচ দিনের পর দিন প্রকাশ্যে চললেও ট্রাফিক বিভাগের যারা অবৈধ অপকর্মকে প্রশ্রয় দিচ্ছেন তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার কথা জানান ডিএমপি মুখপাত্র।

ঢাকা মহানগর পুলিশের মুখপাত্র (ডিএমপি) মোহাম্মদ ফারুক হোসেন বলেন, ট্রেনিং প্রতিষ্ঠানগুলোর তালিকা করব, তাদের গাড়ির ফিটনেস আছে কিনা, আমরা পরীক্ষা নিরীক্ষা করব। তাদের যদি ফিটনেস না থাকে তাহলে তাদের বিরুদ্ধে কঠোর আইনগত ব্যবস্থা নেব।

সড়কের নিরাপত্তায় অনিয়ম বন্ধে কঠোর হবে প্রশাসন- এমন প্রত্যাশা সবার।

Share This Article


১৯ দিনেই ১৩১ কোটি ডলার রেমিট্যান্স এসেছে

রেমিট্যান্স পাঠানোর পথ হলো আরও সহজ

কাঁচা লবণ ও চায়ে চিনি না খাওয়ার পরামর্শ চিকিৎসকদের

এবার রাশিয়া ছাড়ছে স্টারবাকস

নগ্নতার অভিযোগে পপ তারকা ম্যাডোনাকে ব্যান করল ইনস্টাগ্রাম

২৫শে জুন পদ্মা সেতুর উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

৫ জুন থেকে সারাদেশে ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাম্পেইন

মিয়ানমারের সৈকতে ভেসে এল ১৪ লাশ

২৬ কোটি ৪ লাখ ডোজ টিকা প্রয়োগ সম্পন্ন

বর্ষায় গুরুত্বপূর্ণ ফিমেল হাইজিন, এই বিষয়গুলো মেনে চলছেন তো?

মাঙ্কিপক্স নিয়ন্ত্রণে রাখা সম্ভব: ডব্লিউএইচও

নাইজেরিয়ায় সশস্ত্র হামলায় নিহত ৫০

খালাস চেয়ে হাজী সেলিমের আপিল, জামিন আবেদন

আবারো কমলো টাকার মান

কানের লালগালিচায় কালো ধোঁয়া