Templates by BIGtheme NET
১০ কার্তিক, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ , ২৬ অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ , ১৯ রবিউল আউয়াল, ১৪৪৩ হিজরি
Home » জাতীয় » একটি জামা ব্যবহার করুন অন্তত ৯ মাস

একটি জামা ব্যবহার করুন অন্তত ৯ মাস

প্রকাশের সময়: সেপ্টেম্বর ১৭, ২০২১, ৭:৪৪ অপরাহ্ণ

বিগত পাঁচ দশকের মধ্যে বর্তমানে পোশাকের মূল্য সবচেয়ে কম। আর এটির একটি খারাপ দিক হচ্ছে দূষণ।
খুব সহজেই আমরা একটা জামা কিনে ফেলি, আবার একটু পুরান হলেই সেটা ফেলে দেই। বিশেষ করে যারা ফ্যাশনের সঙ্গে তাল মিলিয়ে চলেন, তারা পোশাক পরিবর্তন করেন দ্রুত।

কিন্তু গবেষকরা বলছেন, একটা পোশাক অন্তত ৯ মাস ব্যবহার না করলে কাপড় তৈরির পেছনে হওয়া প্রাকৃতিক দূষণের মাত্রা ৩০ শতাংশ বেড়ে যায়।

কিভাবে?

গবেষণায় দেখা গেছে, একটি সুতির কাপড় তৈরিতে তুলা উৎপাদন থেকে শুরু করে স্পিনিং, উইভিং, ডায়িং, ফিনিশিং, গার্মেন্ট ম্যানুফ্যাকচারিং, পোস্ট কনজিউমিংসহ পুরো প্রক্রিয়ায় প্রচুর পরিমান কার্বন ও নানান রাসায়নিক বজ্য প্রকৃতিতে মেশে। সেই সঙ্গে অন্তত ২০ হাজার লিটার পানি খরচ হয়।

তাই একজন মানুষ যদি ৯ মাসের মধ্যে দুটি পোশাক ব্যবহার করে তাহলে প্রাকৃতিক এ দূষণটিও দ্বিগুন হয়ে যায়। কারণ পোশাক প্রস্তুতকারকরা ততক্ষণ পর্যন্ত উৎপাদন চালিয়ে যাবে, যতক্ষন মার্কেটে পোশাকের চাহিদা থাকবে। আর এই চাহিদা সৃষ্টি করে ক্রেতারাই।

আমরা শুধু পোশাক কিনেই অপচয় করি এমন নয়, ক্রেতার হাতে আসার আগেও নানান পর্যায়ে কাপড় ফেলে দিতে হয়। যেমন বাতিল কাপড়, রিজেক্টড পোশাক, বিক্রি না হওয়া বা ট্রেন্ড শেষ হওয়া পোশাক এবং ক্লথ কাটিং এর সময় ফেলে দেয়া কাপড়, যাকে স্থানীয় ভাষায় ঝুট বলা হয়।

ফেলে দেয়া এই কাপড়ের মাত্র ১২ শতাংশ ডাউনসাইকেলড হয়ে ম্যাট্রেস, ক্লিনিং ক্লোদস, পাপোশ, লুসনি বা অন্যান্য কাজে ব্যবহার হয়। বাকি ৮৮ শতাংশ পরিণত হচ্ছে বর্জ্যে। যা ভাগারের সঙ্গে মাটিতে মিশে মাটিদূষণ, বায়ুদূষণ ও পানিদূষণ করছে।

প্রতিবছর অবিক্রিত প্রায় ১০০ বিলিয়ন ডলার সমমূল্যের কাপড় ফেলে দিতে হয়। বাংলাদেশি টাকায় যার অর্থমূল্যে ৮ হাজার ৪৬৭ কোটি টাকা।

গবেষণা মতে, প্রতিবছর পোশাক ও তুলা ধোয়া ও রং করার কাজে ১ হাজার ৫০০ বিলিয়ন লিটার পানি ব্যবহার করা হয়। কারখানাগুলো ব্যবহারের পর এই বিষাক্ত পানি নদী আর খালে ফেলে দেয়।

আর এভাবেই গার্মেন্টসের জঞ্জালে ভরে উঠেছে পৃথিবী। বিশ্বে যত কার্বন নিঃসরণ হচ্ছে, তার ১০ শতাংশের বেশি আসছে গার্মেন্টস ইন্ডাস্ট্রি থেকে। বিশ্ব দিন দিন বসবাসের অনুপযোগী হয়ে উঠছে। আর সেখানে ব্যাপক ভূমিকা রাখছে আমাদের শখের পোশাক।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

nineteen − seventeen =