Templates by BIGtheme NET
২৫ বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ , ৮ মে, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ , ২৫ রমজান, ১৪৪২ হিজরি
Home » জাতীয় » পুরান ঢাকায় বহাল তবিয়তে ঝুঁকিপূর্ণ অবৈধ প্লাস্টিক কারখানাগুলো

পুরান ঢাকায় বহাল তবিয়তে ঝুঁকিপূর্ণ অবৈধ প্লাস্টিক কারখানাগুলো

প্রকাশের সময়: এপ্রিল ২৪, ২০২১, ১২:৩৯ অপরাহ্ণ

মোহাম্মাদ এনামুল হক এনা: পুরান ঢাকায় কেমিক্যাল গোডাউনে অগ্নিকাণ্ড যেন নিত্তনৈমিত্তিক ঘটনা। এতে বহু মানুষের মৃত্যু হয়েছে, আহতের সংখ্যাও কম নয়। বারবার ভয়াবহ আগুন লাগার পরও পুরান ঢাকায় বন্ধ হয়নি রাসায়নিক-দাহ্য পদার্থের ব্যবসা।

সরানো হয়নি ক্যামিকেল গুদাম। অবৈধ প্লাস্টিক কারখানাগুলো এখনো বহাল তবিয়তে। ফায়ার সার্ভিসের বিধিনিষেধও উপেক্ষিত। আবাসিক এলাকায় অবৈধভাবে গড়ে ওঠা এসব কারখানার মালিকরা কোনো নিয়ম মানছে না। বছরের পর বছর ধরে অবৈধভাবে ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছেন। ফলে এখনো ঝুঁকিতেই রয়েছেন পুরান ঢাকাবাসী।

সরকারি হিসাব অনুযায়ী, পুরনো ঢাকায় ঝুঁকিপূর্ণ প্রায় ২৫ হাজার রাসায়নিক, প্লাস্টিকের কারখানা ও গুদাম আছে।

সর্বশেষ ২২ এপ্রিল মধ্যরাতে পুরান ঢাকার আরমানিটোলায় কেমিক্যাল গোডাউনে ভয়াবহ আগুনে পাঁচজন নিহত হয়েছেন ও গুরুতর আহত ২১জনও শঙ্কামুক্ত নন বলে জানা যায়।

গত বছর ১০ ডিসেম্বর চকবাজারের পরিত্যক্ত ‘নোয়াখালী ভবনে’ প্লাস্টিক কারখানায় ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। চারতলা এ ভবনে রয়েছে ৩০টি প্লাস্টিকের কারখানা ও ৭০টি গোডাউন। পরিত্যক্ত হওয়া একটি ভবনে কীভাবে চলত প্লাস্টিক কারখানা সেই প্রশ্নের উত্তর অধরাই থেকে যায়।

আর ২০১৯ সালের ২০ ফেব্রুয়ারি রাতে চুড়িহাট্টার ওয়াহেদ ম্যানশনের অবৈধ কেমিক্যাল গোডাউন থেকে আগুন লাগে। ওই আগুনে চারতলা ওয়াহেদ ম্যানশনসহ ৫টি ভবন পুরোপুরি ভস্মিভূত হয়। আর আগুনে ৭১ জন নিহত এবং আহত হন অনেকে। এছাড়া ২০১০ সালের ৩ জুন ঘটে নিমতলী ট্রাজেডি। ভয়াবহ আগুনে ঝরে যায় ১২৪ টি প্রাণ।

সরকারি তথ্যে জানা যায়, রাজধানী থেকে রাসায়নিক কারখানা ও গুদাম সরিয়ে নিতে কেরানীগঞ্জ ও নারায়ণগঞ্জে জায়গা ঠিক করা হচ্ছে। মুন্সিগঞ্জের সিরাজদিখান উপজেলায় ৩১০ একর জায়গাজুড়ে একটি দীর্ঘমেয়াদী উন্নয়ন প্রকল্প হাতে নেয়ার কথা রয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

12 + thirteen =