Templates by BIGtheme NET
১২ মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ , ২৬ জানুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ , ১২ জমাদিউস সানি, ১৪৪২ হিজরি
Home » বিশেষ সংবাদ » গান্ধা আরজুতে অতিষ্ঠ রাজধানীর পল্লবী

গান্ধা আরজুতে অতিষ্ঠ রাজধানীর পল্লবী

প্রকাশের সময়: জানুয়ারি ১৩, ২০২১, ৯:৩৯ অপরাহ্ণ

মিরপুর-১১ ফুটবল গ্রাউন্ড ক্যাম্পের বাসিন্দা আরজু ওরফে গান্ধা আরজু। বিহারী আরজু হিসেবে পরিচিত কিশোর গ্যাংয়ের এই নেতা বিহারী মোস্তাকের ভাতিজা ও পুলিশের তালিকাভুক্ত মাদক ব্যবসায়ী মিস্টারের চাচাতো ভাই। এ সুবাদে এলাকায় গড়ে তুলোছেন কিশোর গ্যাং। এ বাহিনীর কাছে অনেকেই হয়েছেন সর্বস্বান্ত, আবার অনেকে হয়েছেন রক্তাক্ত। নির্যাতনের শিকার হলেও প্রাণনাশের শঙ্কায় অভিযোগ করার সাহস করে না কেউই।

এমসিসি ক্যাম্প, ফুটবল গ্রাউন্ড ক্যাম্প, শাহীন স্কুল ক্যাম্প, কাইল্লা বস্তি, নন লোকাল রিলিফ ক্যাম্প এবং এভিনিউ ফাইভে আরজুর রয়েছে বেশ কয়েকটি কিশোর গ্যাং। এ গ্যাং-এর সদস্যরা মাদক গ্রহণ, চুরি, ছিনতাই, অন্যের হয়ে মারামারি, দখল, মিছিল মিটিং ও অবরোধে লোক সরবরাহ করে। গ্যাং সদস্যদের বেশিরভাগই বখে যাওয়া তরুণ। অনেকে স্কুলের গণ্ডিতেও পা রাখেনি। গ্যাং প্রধান আরজুর ইশারা-ইঙ্গিতে পল্লবীতে মুহূর্তেই চলে তাণ্ডব।

২০২০ সালের ২ জুনে আরজু বাহিনীর সাথে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে হামলার শিকার হয় বিহারী নেতা ফাক্কু ও শাহিদ আলী বাবুলের পরিবার। এতে আহত হন ৫ জন। এ ঘটনায় পল্লবী থানায় দুটি মামলাও হয়। এরপর গেল ১৭ ডিসেম্বর পল্লবীর ১১ নম্বরে ফাইভের হাজী হোটেলের সামনে মিষ্টি খাওয়ার টাকা না দেয়ায় এক শাড়ী ব্যবসায়ীসহ তিনজনকে কুপিয়ে জখম করে আরজু ও তার সহযোগীরা। এই ঘটনায়ও মামলা হয়েছে। গ্রেপ্তারও হয়েছেন আরজু। কিন্তু প্রভাব খাটিয়ে পরদিনই জামিনে বেরিয়ে যান তিনি।

এখানেই শেষ নয়, আরজু গ্যাংয়ের কাছে নিরাপদ নয় পল্লবী এলাকার নারী ও শিক্ষার্থীরাও। কিছুদিন আগে আরজু পল্লবীতে এক স্বামীর সামনে তার স্ত্রীকে উত্যক্ত করলে তিনি আরজুকে ধমক দেন। এর কিছুক্ষণ পরেই আরজু বাহিনী তার বাড়িতে হামলা চালিয়ে ওই ব্যক্তিকে কুপিয়ে জখম করে। ভয়ে এই পরিবার মামলা করতেও সাহস করেননি।

ভুক্তভোগী শিক্ষার্থীদের অভিযোগ, কারো হাতে দামি মোবাইল ফোন বা মূল্যবান কিছু দেখলে বিভিন্ন ফাঁদে ফেলে তা হাতিয়ে নেয় আরজু বাহিনী।

এই সব অনেক অভিযোগের ভিত্তিতে ১২ জানুয়ারি পল্লবী থানার ওসি কাজী ওয়াজেদ আলীর টিম গ্রেপ্তার করে কিশোর গ্যাংয়ের লিডার আরজু ওরফে গান্ধা আরজুকে। কিন্তু প্রভাশালীদের ছত্রছায়ায় থাকা আরজু কতদিন জেলে থাকবেন তা নিয়ে সন্দিহান এলাকাবাসী।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

two × five =