Templates by BIGtheme NET
১২ অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ , ২৭ নভেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ , ১১ রবিউস সানি, ১৪৪২ হিজরি
Home » জাতীয় » মেগা প্রকল্প ভাসান চর রোহিঙ্গাদের অপেক্ষায়

মেগা প্রকল্প ভাসান চর রোহিঙ্গাদের অপেক্ষায়

প্রকাশের সময়: অক্টোবর ১৯, ২০২০, ৩:৪৬ অপরাহ্ণ

বাংলাদেশের দক্ষিণে স্বন্দীপের কাছে অবস্থিত এই দ্বীপটির নাম ভাসানচর। এখানে তৈরি করা হয়েছে মিয়ানমারের নিরাপত্তা বাহিনীর নির্যাতনে বাংলাদেশে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গাদের জন্য অস্থায়ী আশ্রয়ণ প্রকল্প।

৩ হাজার ১শ কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মিত এই নগরীতে এক সঙ্গে ১ লাখ মানুষ থাকতে পারবে। তাদের সুরক্ষা ও সুযোগ সুবিধার জন্য রয়েছে শক্তিশালী বাধঁ, ২৪ ঘন্টা বিদ্যুৎ সরবারহ, হাসপাতাল, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, মসজিদ, থানা, বাজার ও ঘূর্ণিঝড় আশ্রয় কেন্দ্র।

এছাড়া রয়েছে এতিমখানা, ডে-কেয়ার সেন্টার এবং সুপার শপের জন্য আলাদা ভবন।

মূলত ক্লাস্টার হাউজ বা গুচ্ছগ্রাম পদ্ধতিতে গড়ে উঠেছে এই নগরী। মোট ১২০টি ক্লাস্টার হাউজের প্রতিটিতে রয়েছে ১টি করে ঘূর্ণিঝড় আশ্রয় কেন্দ্র।

প্রতিটি ক্ল্যাস্টারে ১২টি গৃহ এবং প্রতিটি গৃহে ১৬টি কক্ষ রয়েছে। প্রতিটি কক্ষে চারজন করে থাকতে পারবেন।

নারী পুরুষদের জন্য রয়েছে আলাদা টয়লেট, গোসলখানা।

আরও আছে জাতিসংঘ, আন্তর্জাতিক মানবধিকার সংস্থা ও এনজিওগুলোর জন্য পৃথক ভবন।

পুরো প্রকল্পটি সার্বক্ষণিকভাবে সিসি ক্যামেরা দ্বারা নিয়ন্ত্রিত।

এছাড়া এই দ্বীপে কৃষি খামার ছাড়া নানা রকম অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ডযুক্ত হওয়ার সুযোগ রয়েছে ভবিষ্যত বাসিন্দাদের।

প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের নজরদারিতে এই মেগা প্রকল্পটির নির্মাণ, বাস্তবায়ন ও ব্যবস্থাপনা করেছে বাংলাদেশ নৌ বাহিনী।

আধুনিক সুবিধা নিয়ে তৈরি নোয়াখালীর ভাসানচরের অস্থায়ী আশ্রয়ণ প্রকল্পটি এখন অপেক্ষায় আছে রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠী স্থানান্তরের।

ভাসান চরের এই আবাসন প্রকল্প এক লাখ রোহিঙ্গাকে জায়গা দিতে প্রস্তুত এবং এতে করে উখিয়া ও টেকনাফের রোহিঙ্গা ক্যাম্পগুলোর ওপর চাপ কমবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

8 − two =