Templates by BIGtheme NET
১২ অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ , ২৭ নভেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ , ১১ রবিউস সানি, ১৪৪২ হিজরি
Home » আন্তর্জাতিক » বাংলাদেশিদের জন্য যুক্তরাজ্যে কর্মসংস্থানের হাতছানি

বাংলাদেশিদের জন্য যুক্তরাজ্যে কর্মসংস্থানের হাতছানি

প্রকাশের সময়: অক্টোবর ১৯, ২০২০, ১:১৩ অপরাহ্ণ

করোনা ও ব্রেক্সিটপরবর্তী যুক্তরাজ্যকে অর্থনৈতিকভাবে চাঙ্গা করার উদ্যোগ নিয়েছে দেশটির সরকার। তারই অংশ হিসেবে কাজের অনুমতি দিয়ে বাংলাদেশসহ অন্যান্য দেশ থেকে দক্ষ জনবল নেয়ার পরিকল্পনা করছে যুক্তরাজ্য।

সম্প্রতি দেশটির সরকারি ওয়েবসাইটে এ বিষয়ে তথ্য দেয়া হয়েছে। সেখানে বলা হয়েছে, ২০২১ সালের জানুয়ারি থেকে ‘স্কিল ওয়ার্কার রুটে’ন্যূনতম ‘লেভেল থ্রি’ যোগ্যতার পেশার লোকেরা এ সুযোগ পাবে।

কাজের অভিজ্ঞতা ও শিক্ষাগত যোগ্যতা পয়েন্টের মাধ্যমে নির্ণয় করা হবে তাদেরকে। এতে বাংলাদেশি কমিউনিটি ব্যাপকভাবে উপকৃত হওয়ার সুযোগ রয়েছে।

বর্তমানে যুক্তরাজ্যে প্রবাসীদের কাজের ক্ষেত্রে শিক্ষাগত স্নাতক কিংবা স্নাতক সমমানের ডিপ্লোমা কোর্সের প্রয়োজন হতো তবে নতুন নিয়মে এইচএসসি সমমান কিংবা সাধারণ ডিপ্লোমা অর্থাৎ যোগ্যতা লেভেল থ্রি হলেই চলবে।

এর ফলে বাংলাদেশি কমিউনিটির অনেক শপ, ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে প্রচুর পরিমাণে চাকরির নতুন ক্ষেত্র তৈরি হবে। নতুন আইনের আওতায়, ওয়ার্ক পারমিট নিয়ে স্থায়ী হতে চাইলে আগের মতো কঠোর আইনের মারপ্যাঁচে পরতে হবে না।

বাংলাদেশ থেকে যুক্তরাজ্যে সব থেকে বেশি জনবল আসে রেস্টুরেন্ট সেক্টরে। তবে নতুন নিয়মে এ সেক্টরের শেফ ক্যাটাগরিতে কোনো ধরনের লেভেল কমানো হয়নি।

তবে সুখবর হচ্ছে নতুন এ নিয়মে সাংবাদিক, সংস্কৃতিকর্মী, সমাজকর্ম, আইন পেশার সঙ্গে যুক্ত, হাসপাতাল সেক্টরের লোকেরা যুক্ত হচ্ছে।

এ ছাড়া বুচার সেক্টরে লোক নেওয়া যাবে, রেস্টুরেন্ট ম্যানেজার, ক্যাটারিং ম্যানেজার, সেলস ম্যানেজার সেক্টরগুলোতেও কর্মসংস্থান তৈরি হচ্ছে।

অন্যদিকে যুক্তরাজ্যের মাইগ্রেশন অ্যাডভাইজারি কমিটি ম্যাক শর্টেজ অকুপেশন লিষ্ট ৭০টি নতুন কাজের প্রস্তাব দিয়েছে। এতে বেতন ধরা হয়েছে ২০ হাজার ৫০০ পাউন্ড।

নতুন অকুপেশন লিস্টে যুক্ত হচ্ছে- বুচার, কনফেকশনারি কেক ডেকোরেটার্স, ব্রিক লেয়ার যারা করেন তারা। এমনই নতুন নতুন বেশ কয়েকটি পেশা যুক্ত হচ্ছে দেশটির নতুন প্রবাসীদের কর্মসংস্থানের ক্ষেত্রে।

ওয়ার্ক পারমিটের ক্ষেত্রে কোম্পানিগুলোর আগ্রহ অনেক কম বলে মনে করেন বিশেষজ্ঞরা। তবে ব্রেক্সিট ও করোনার ধাক্কা সামাল দিতে দেশটির সরকার কোম্পানিগুলোকে বিভিন্নভাবে উৎসাহ দিচ্ছে।

সরকারিভাবে উৎসাহ দেওয়া হলেও মাত্র ৩১ হাজার কোম্পানি ওয়ার্ক পারমিটের জন্য রেজিস্টার করছে, যা যুক্তরাজ্যের মোট কোম্পানির মাত্র ৩ শতাংশ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

1 × three =