Templates by BIGtheme NET
১৪ মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ , ২৮ জানুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ , ১৪ জমাদিউস সানি, ১৪৪২ হিজরি
Home » করোনাভাইরাস » করোনার পরীক্ষা : যে কারণে উপসর্গ থাকার পরেও ফল নেগেটিভ আসে

করোনার পরীক্ষা : যে কারণে উপসর্গ থাকার পরেও ফল নেগেটিভ আসে

প্রকাশের সময়: অক্টোবর ১৮, ২০২০, ২:৫৮ অপরাহ্ণ

কোভিড-১৯ পরীক্ষা নিয়ে অনেককেই দ্বিধায় পড়তে হয়েছে। দেখা গেছে, কারও শরীরে ভাইরাসটির একাধিক উপসর্গ থাকলেও ফল নেগেটিভ আসে। আবার কারও উপসর্গ না থাকলেও ফল পজিটিভ আসে।

বিষয়টি নিয়ে চিকিৎসকদের শরণাপন্ন হলে তারা বলেন, করোনা পরীক্ষার পদ্ধতিগুলো পরিচালনা করার জন্য যথেষ্ট সময় এবং প্রচেষ্টা প্রয়োজন। ফলাফলটি আসতে ২৪ থেকে ২৮ ঘন্টা সময় লাগে। তবে সমস্যার বিষয় হলো নমুনা যদি সঠিক তাপমাত্রায় সংরক্ষণ করা না হয়, কিংবা সনাক্ত করতে ব্যবহৃত রাসায়নিকগুলো যদি সঠিকভাবে কাজ না করে তাহলে ফলাফল নেগেটিভ আসতে পারে।

সাধারণত করোনার লক্ষণ দুই থেকে চারদিনের মধ্যে দেখা দেওয়া শুরু করে। পুরোপুরি লক্ষণ দেখা দিতে অনেকের দুই সপ্তাহের মত সময় লাগতে পারে। অনেকেই ভালোভাবে লক্ষণ না দেখা দিতেই টেস্ট করে এতে করে রিপোর্ট নেগেটিভ আসে।

অনেক ক্ষেত্রে সঠিকভাবে পরীক্ষা না করার কারণেও ফল নেগেটিভ আসতে পারে।

সাধারণত নাক থেকে এবং গলা থেকে স্যাম্পল গ্রহণ করা হয়। তবে নমুনাটি যদি পর্যাপ্ত পরিমাণে শ্লৈষ্মিক নিঃসরণ গ্রহণ না করে কিংবা ভাইরাল লোড তৈরি না হয় তাহলে রিপোর্ট নেগেটিভ আসতে পারে।

এদিকে, উপসর্গ না থাকলেও অনেকের ক্ষেত্রে রিপোর্ট পজেটিভ আসে। এর উত্তরে চিকিৎসকরা বলেন, এটা সম্পূর্ণই নির্ভর করে নমুনা সংগ্রহের উপর। অনেক ক্ষেত্রে ভাইরাল লোডগুলো উপস্থিতি বেশি থাকলে রিপোর্ট পজিটিভ আসে। আর এসবের বেশিরভাগের ক্ষেত্রে রোগী কিছু বুঝে উঠার আগেই তারা সুস্থ হয়ে উঠেন।

তবে রিপোর্ট নেগেটিভ আর পজেটিভ, যাই আসুক না কেন, এ ক্ষেত্রে চিকিৎসকদের পরামর্শ হচ্ছে, দ্বিধা কাটানোর জন্য সবাইকে কিছুদিন কোয়ারেন্টিনে থাকতে হবে। পাশাপাশি মাস্ক ও সামাজিক দূরত্ব মেনে চলতে হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

five − three =