Templates by BIGtheme NET
১১ কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ , ২৭ অক্টোবর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ , ৯ রবিউল আউয়াল, ১৪৪২ হিজরি
Home » বিনোদন » মানবপাচার নিয়ে তৈরি সিনেমায় অর্থায়ন করছে এমিরেটস

মানবপাচার নিয়ে তৈরি সিনেমায় অর্থায়ন করছে এমিরেটস

প্রকাশের সময়: অক্টোবর ১৭, ২০২০, ৭:৪৯ অপরাহ্ণ

মানবপাচারের ওপর নির্মাণ হচ্ছে একটি আন্তর্জাতিক মানের চলচ্চিত্র। ‘হোয়াট ইজ হিউম্যান ট্রাফিকিং’ নামের এই ছবিটির নির্মাণ ও প্রচারে সহযোগিতার হাত বাড়িয়েছে এমিরেটস এয়ারলাইন্স।

প্রখ্যাত অভিনেতা লিয়াম নিসানকে সঙ্গে নিয়ে চলচ্চিত্রটি নির্মাণ করা হচ্ছে।

এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এমিরেটস বাংলাদেশ এ তথ্য জানিয়েছে। তারা জানায়, স্বল্পদৈর্ঘ্য এ ছবির উদ্দেশ্য হলো মানবপাচার ও শোষণের বাস্তব অবস্থা সম্পর্কে জনসাধারণকে অবহিত ও ভুল ধারণা দূর করা।

এমিরেটস তার সব ফ্লাইটের ইনফ্লাইট প্রোগ্রামে এই চলচ্চিত্রটি অক্টোবর থেকে প্রদর্শনের উদ্যোগ নিয়েছে। এর মাধ্যমে মানবপাচার সমস্যা সম্পর্কে অধিক সচেতনতা সৃষ্টি ও রোধে ভূমিকা রাখতে চায় এয়ারলাইন্সটি।

আন্তর্জাতিক শ্রম সংস্থার (আইএলও) একটি পরিসংখ্যান মতে, ২০১৭ সালে ২ কোটি ৪৯ লাখ মানুষ বলপূর্বক, ভীতি প্রদর্শন ও প্রতারণার মাধ্যমে মানবপাচার এবং শোষণের শিকার হয়েছেন। যার মধ্যে ৭৫ শতাংশ নারী ও শিশু।

এমিরেটস তার নিরাপত্তা বিভাগের মাধ্যমে বিভিন্ন সরকারি এজেন্সি ও সংস্থার সঙ্গে এ সমস্যা রোধে যৌথভাবে কাজ করছে। মধ্যে রয়েছে- আইএটিএ, ইউএস ওভারসিজ সিকিউরিটি অ্যাডভাইজরি কাউন্সিল (ওসাক) ও ইউনাইটেড নেশনস অফিস অন ড্রাগ অ্যান্ড ক্রাইমস (ইউএনওডিসি)।

এমিরেটস তার ভূমিকার অংশ হিসেবে তাদের বিমানবন্দর স্টাফ ও ক্রুদের প্রয়োজনীয় প্রশিক্ষণ দেয়। ফলে তারা সন্দেহজনক কিছু চিহ্নিতকরণ এবং সংশ্লিষ্ট আইন রক্ষাকারী সংস্থাকে রিপোর্ট করার ব্যাপারে পারদর্শী।

এমিরেটসের হাব- দুবাই আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত সিকিউরিটি দল সম্ভাব্য মানবপাচারকারীদের চিহ্নিত করার কাজে সদা নিয়োজিত। বিভিন্ন দূতাবাসের সঙ্গে যৌথভাবে তাদের প্রশিক্ষণও প্রদান করে এমিরেটস।

অন্যতম প্রথম এয়ারলাইন্স হিসেবে এমিরেটস তাদের গ্রাউন্ড স্টাফ ও ক্রুদের জন্য ‘অন-বোর্ড অপরাধ প্রতিরোধ’ শীর্ষক ই-লারনিং মডিউল প্রবর্তন করেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

two × 3 =