Templates by BIGtheme NET
৫ কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ , ২১ অক্টোবর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ , ৩ রবিউল আউয়াল, ১৪৪২ হিজরি
Home » জাতীয় » ফাঁকি বন্ধে এবার আঙুলের ছাপে মিলবে সরকারি চাল

ফাঁকি বন্ধে এবার আঙুলের ছাপে মিলবে সরকারি চাল

প্রকাশের সময়: সেপ্টেম্বর ২৭, ২০২০, ১:১৯ অপরাহ্ণ

সরকারি চাল বিতরণে অনিয়মের অভিযোগ বেশ পুরোনো। তাইতো এবার অনিয়ম বন্ধে প্রথমবারের মতো শুরু হয়েছে বায়োমেট্টিক (আঙুলের ছাপ) পদ্ধতিতে সরকারি চাল বিতরণ কার্যক্রম।

এ পদ্ধতির বিশেষত্ব হচ্ছে, এর মাধ্যমে উপকারভোগীর চাল উত্তোলনের তথ্য কেন্দ্রীয় তথ্যভান্ডার বা সার্ভারে জমা হবে।

এতে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা ও ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ ওয়েবসাইটের মাধ্যমে কারা চাল উত্তোলন করেছেন, কারা করেননি, তার তথ্য জানতে পারবেন। ফলে ফাঁকি দেওয়ার কোনো সুযোগ থাকবে না।

খাদ্য বান্ধব কর্মসূচির আওতায় সারা দেশে অতিদরিদ্ররা প্রতিমাসে ৩০ কেজি করে সরকারি চাল পেয়ে থাকেন। যেই প্রক্রিয়াটি সম্পন্ন হয় একটি কার্ডের মাধ্যমে। অথচ এখানে অনেক অনিয়ম লক্ষ্য করা যায়। অনেকেই জানেই না তাদের নামে বছরের পর বছর চাল তোলা হচ্ছে। সেটি রুখতেই বায়োমেট্টিকের ব্যবস্থা।

এ ওয়েবসাইটে উপকারভোগীর নাম, ঠিকানা, ছবি, জাতীয় পরিচয়পত্র নম্বর, আঙুলের ছাপসহ ১৩ ধরণের তথ্য রয়েছে। এতে উপকারভোগীকে আসল-নকল যাচাই করে চাল দেয়া হয়। একই ব্যক্তি যেন একাধিকবার চাল তুলতে না পারেন, সেটিও দেখা হয়।

এখানে প্রত্যেক উপকারভোগীর তথ্যের বিপরীতে যুক্ত করা হয়েছে তার আঙুলের ছাপ। সবার ১০ আঙুলের ছাপ নেয়া হয়। যেকোনো একটি আঙুলের ছাপ মিললেই চাল উত্তোলন করতে পারবেন তারা।

ওয়েবসাইটে উপকারভোগী তাদের জাতীয় পরিচয়পত্র, মোবাইল নম্বর, ডিজিটাল আইডি নম্বর দিয়ে সিস্টেমটিকে প্রবেশ করা মাত্রই তার ছবিসহ যাবতীয় তথ্য প্রদর্শিত হয়।

উল্লেখ্য, আংশিকভাবে বায়োমেট্টিক পদ্ধতিতে চাল বিতরণ শুরু হয়েছে কুমিল্লার দেবিদ্বার উপজেলায়। তবে ওয়েবসাইটির আরো হালনাগাদের কাজ চলছে। শেষ হলে পুরো দেশে এই পদ্ধতিতে চাল বিতরণ করা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

twelve + sixteen =