Templates by BIGtheme NET
২০ আষাঢ়, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ , ৪ জুলাই, ২০২০ ইং , ১১ জিলক্বদ, ১৪৪১ হিজরী
Home » খেলাধূলা » ফিক্সিং ছাড়া পৃথিবীতে কোনও ক্রিকেট ম্যাচ হয় না: দাবি জুয়াড়ির

ফিক্সিং ছাড়া পৃথিবীতে কোনও ক্রিকেট ম্যাচ হয় না: দাবি জুয়াড়ির

প্রকাশের সময়: জুন ৩, ২০২০, ৪:১৬ অপরাহ্ণ

বিশ্বের সব ক্রিকেট ম্যাচে ফিক্সি হয়। ফিক্সিং ছাড়া পৃথিবীতে কোনও ক্রিকেট ম্যাচ হয় না বলে দাবি করেছেন ২০০০ সালের ম্যাচ ফিক্সিং কাণ্ডে জড়িত ভারতীয় জুয়াড়ি সঞ্জীব চাওলা।

জুয়াড়ি চাওলার বিস্ফোরক মন্তব্য নিয়ে সম্প্রতি প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে ভারতীয় সংবাদ মাধ্যম ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস।

তাঁর দাবি, দর্শকরা যে ম্যাচ দেখে সেই সব ম্যাচে ফিক্সিং হয়। কোনও ক্রিকেট ম্যাচই শতভাগ সততার সঙ্গে খেলা হয় না।

যে সব ক্রিকেট ম্যাচ দর্শকরা দেখেন সেগুলো বিশাল বড় সিন্ডিকেট বা মাফিয়া দ্বারা পরিচালিত হয়। ফলে ফিক্সিং করা ছাড়া উপায় থাকে না।

ক্রিকেট অনেকটা সিনেমার মতো। দর্শক যা দেখছে পুরোটাই কোনও পরিচালক সেটা পরিচালনা করেছে। সিনেমায় যেমন পরিচালকই সব, এখানেও মাঠের বাইরে অদৃশ্য পরিচালকই ম্যাচ নিয়ন্ত্রণ করে।

আর যেহেতু ম্যাচ ফিক্সিংয়ে মাফিয়ারা সরাসরি জড়িত থাকে তাই ক্রিকেটারদের প্রাণসংশয়ের আশঙ্কা থাকে।

এর থেকে বেশি কিছু এখন বলা সম্ভব নয়। না হলে আমারও প্রাণ সংশয়ের আশঙ্কা থাকবে। কারও নাম এভাবে বলা সম্ভব নয় আমার পক্ষে।”

করোনা লকডাউনে বিশ্বে ক্রিকেটে এখন তালা ঝুলছে। এই পরিস্থিতির মাঝে ফিক্সিং নিয়ে তার বিস্ফোরক দাবি সবাইকে ভাবিয়ে তুলেছে।

কৃষণ কুমার, রাজেশ কালরা, সুনীল দারা তাঁর পুরোনো বন্ধু এবং জুয়া কাণ্ডেও জড়িত। দীর্ঘদিন যুক্তরাজ্যে থাকায় তিনি ইউকে র নাগরিকত্বও নিয়ে নেন ২০০৫ সালে।

দীর্ঘদিন প্রত্যর্পণ প্রক্রিয়া চালানোর পর ২০২০ সালের ১৪ ফেব্রুয়ারি চাওলাকে ভারতে ফিরিয়ে আনা হয়।

২০০০ সালের ফেব্রুয়ারি-মার্চে ভারত সফরে এসেছিল দক্ষিণ আফ্রিকা ক্রিকেট দল। সেই সফরে দক্ষিণ আফ্রিকার প্রয়াত অধিনায়ক হ্যান্সি ক্রোনিয়ের সঙ্গে যোগসাজশ করে ম্যাচ ফিক্সিয়ে সঞ্জীব চাওলার প্রধান ভূমিকা ছিল বলে অভিযোগ পাওয়া যায়।

তদন্ত কমিশনে হাজির হয়ে প্রয়াত দক্ষিণ আফ্রিকা অধিনায়ক ক্রোনিয়ে স্বীকার করেছিলেন, সেই সফরে ভারতের বিরুদ্ধে ওয়ান ডে সিরিজে জুয়াড়িদের থেকে অর্থ নিয়ে ম্যাচ ফিক্সিং করেছিলেন তিনি।

তদন্ত চলাকালীন আকষ্মিক বিমান দূর্ঘটনায় হ্যান্সি ক্রোনিয়ের মৃত্যু হলেও দিল্লি পুলিশ তদন্ত বন্ধ করেনি। ২০১৩ সালে চাওলার বিরুদ্ধে চার্জশিট পেশ করে দিল্লি পুলিশ।

পুলিশ জানিয়েছে, তার বিস্তারিত বর্ণনা রয়েছে চার্জশিটে। পাশাপাশি হ্যান্সি ক্রোনিয়ের সঙ্গে চাওলার কথোপকথনের অডিও রেকর্ডিংও রয়েছে পুলিশের কাছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

13 + 15 =