Templates by BIGtheme NET
২৩ জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ , ৬ জুন, ২০২০ ইং , ১৩ শাওয়াল, ১৪৪১ হিজরী
Home » আন্তর্জাতিক » যে তিন কারণে সৌদির তেল সাম্রাজ্যে বড় আঘাত

যে তিন কারণে সৌদির তেল সাম্রাজ্যে বড় আঘাত

প্রকাশের সময়: মে ২৩, ২০২০, ১২:৪১ অপরাহ্ণ

মোহাম্মাদ এনামুল হক এনা: করোনাভাইরাসের প্রভাবে বিশ্ব অর্থনীতি আজ ভয়াবহ সংকটের সম্মুখীন। বিশেষ করে অর্থনীতির নিম্নগতির ধাক্কা বেশি লেগেছে মধ্যপ্রাচ্যের সবচেয়ে ধনী ও তেলসমৃদ্ধ দেশ সৌদি আরবে। সৌদির তেল সাম্রাজ্যে বড় আঘাতের তিন কারণ খুঁজে বের করেছেন মধ্যপ্রাচ্য বিষয়ক সংবাদমাধ্যম ‘মিডল ইস্ট আই’-এর সম্পাদক ডেভিড হার্স্ট।

তিনি প্রিন্স সালমানের অদূরদর্শীতাকে এক নম্বর কারণ হিসেবে বলছেন। দৃশ্যত বাদশা সালমান সৌদি আরবের বাদশা হলেও প্রশাসনিক কলকাঠি নাড়েন তার পুত্র ক্রাউন প্রিন্স মুহাম্মদ বিন সালমান। তিনিই বর্তমানে সৌদি আরবের সবচেয়ে ক্ষমতাধার মানুষ। তিনি দুরদর্শী তো নন-ই, তার নেওয়া একের পর এক ভুল সিদ্ধান্তে সৌদি অর্থনীতি রুগ্ন হয়ে পড়েছে।

দেশের আধুনিকায়নে প্রিন্স সালমান যে উচ্চবিলাসী পরিকল্পনা গ্রহণ করেছিলেন তা ব্যর্থ হয়েছে। রাষ্ট্রীয় তেল কোম্পানি আরামকোর ৫ শতাংশ শেয়ার বিক্রি করে বিদেশী বিনিয়োগ আনার যে পরিকল্পনা তিনি করেছিলেন তা ব্যর্থ হয়েছে।

দ্বিতীয় কারণ রাশিয়ার সঙ্গে সম্পর্কে তিক্ততা। সৌদি শাসকেরা বরাবরই যুক্তরাষ্ট্রপন্থী। ফলে ঐতিহাসিক ভাবে তাদের সম্পর্কের টানাপড়েনের কারণে তেলের দাম কমানোর এক অশুভ প্রতিযোগীতা শুরু করে বিশ্বের দুই শীর্ষ তেল রপ্তানীকারক দেশ রাশিয়া এবং সৌদি আরব। ফলে বিশ্ব বাজারে তেলের দাম কমতে থাকে। এতে রাশিয়ার অর্থনীতিতে খুব বেশি ধাক্কা না লাগলেও বড়সড় ধাক্কা লেগেছে সৌদি অর্থনীতিতে। কারণ রাশিয়ার আয়ের উৎসে এক ধরনের ভারসাম্য থাকলেও, সৌদি অর্থনীতি অনেকাংশে তেল নির্ভর।

তৃতীয় কারণ সৌদির প্রবৃদ্ধিতে মড়ার ওপর খাঁড়ার ঘা হয়ে এসেছে হজ ও ওমরাহ বাতিলকরণ। অর্থনৈতিক পরিসংখ্যান থেকে দেখা যায় প্রতিবছর সৌদি আরবে প্রায় ১ কোটি মানুষ হজ করতে যান। এই বিশালসংখ্যক মানুষ প্রতি বছর দেশটির অর্থনীতিতে ৮০০ কোটি ডলার সম-পরিমাণ অর্থ যোগ করে। কিন্তু এ বছর এই বিশাল অঙ্কের অর্থ আয় হচ্ছে না। ফলে টান পড়েছে রাষ্ট্রীয় কোষাগারে। রাষ্ট্রীয় কোষাগারের অর্থ কমে যাওয়ার কারণে সৌদি সরকারকে রপ্তানী আয় বাড়াতে কম মূল্যে তেল বিক্রি করতে হচ্ছে। এতে তেল উৎপাদন বাড়লেও মূল্য কমে আয়ের পরিমাণ কমে গেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

thirteen + 20 =