Templates by BIGtheme NET
২৩ জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ , ৬ জুন, ২০২০ ইং , ১৩ শাওয়াল, ১৪৪১ হিজরী
Home » করোনাভাইরাস » মাস্ক পরা যাদের জন্য ক্ষতিকর

মাস্ক পরা যাদের জন্য ক্ষতিকর

প্রকাশের সময়: মে ২০, ২০২০, ৫:০৭ অপরাহ্ণ

হাঁপানি বা ফুসফুসের সমস্যায় ভোগা লোকজন মুখে মাস্ক পরে থাকলে নানা ধরনের জটিলতার সৃষ্টি হতে পারে বলে সতর্ক করেছেন ব্রিটিশ স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা। ব্রিটিশ ট্যাবলয়েড ডেইলি মেইলের এক প্রতিবেদনে এসব তথ্য ওঠে এসেছে।

সাধারণ মানুষকে মাস্ক পরার বদলে মুখে কাপড়ের আবরণ ব্যবহারের পরামর্শ দিচ্ছেন বিশেষজ্ঞরা।  তবে এক্ষেত্রে পরস্পরের থেকে অন্তত দুই মিটার বা সাড়ে ছয় ফুট দূরত্ব মেনে চলতে হবে।

দুই বছরের নিচের শিশুদের ক্ষেত্রে কাপড়ের আবরণ ব্যবহার প্রযোজ্য নয় কারণ বেশির ভাগ ক্ষেত্রেই তা ঠিকমতো পরিচালনা করতে পারে না শিশুরা।

করোনা মূলত শ্বাসপ্রশ্বাস-সংক্রান্ত একটি ভাইরাস। মানুষের নিঃশ্বাসের সঙ্গে এই ভাইরাস ভেতরে প্রবেশ করে এক পর্যায়ে ফুসফুসে গিয়ে আক্রমণ করে।

যাদের আগে থেকেই হাঁপানি রোগ কিংবা এই ধরনের কোনো দীর্ঘস্থায়ী সমস্যা কিংবা সিস্টিক ফাইব্রোসিস জাতীয় জটিলতা রয়েছে তারা ফেস মাস্ক পরার ফলে নিঃশ্বাস নিতে সমস্যা তৈরি হয়।

কোনো কোনো সময় এই সমস্যাই তাদের জন্য প্রাণঘাতী হয়ে উঠতে পারে। করোনার সংক্রমণ ছাড়াই মাস্ক পরার জন্য কষ্ট করে নিঃশ্বাস নিতে গিয়ে বিপদ আসতে পারে।

মাস্ক পরার কারণে শ্বাসপ্রশ্বাসজনিত সমস্যার কারণে অনেকের ভেতরে উদ্বেগ থেকেও খারাপ কিছু হতে পারে বলে মনে করেন ব্রিটিশ বিশেষজ্ঞরা।

এদিকে ফুসফুসের সমস্যা ছাড়াও যাদের মুখে ও গলায় চর্মরোগ কিংবা স্মৃতিভ্রংশ সমস্যা রয়েছে তাদের নিয়মিত দীর্ঘ সময়ের জন্য মাস্ক পরা উচিত নয় বলে মনে করেন নিউ ইয়র্ক ইউনিভার্সিটির সংক্রমণব্যাধি বিশেষজ্ঞ পুরভি পারিখ।

তার মতে, মুখ ও নাক একসঙ্গে ঢেকে থাকার কারণে দীর্ঘসময় মাস্ক পরে থাকায় তাদের সমস্যা দেখা দিতে পারে। মুখের সঙ্গে আঁটোসাঁটোভাবে আটকে থাকা জাতীয় মাস্ক শুধু চিকিত্সকদের জন্যই জরুরি। এই ধরনের মাস্ক বেশিক্ষণ পরে থাকা কষ্টকর।

এর আগে গত মার্চে ব্রিটিশ লাং ফাউন্ডেশন বলেছিল, করোনা ভাইরাস থেকে নিজেকে রক্ষা করার জন্য  মাস্ক পরা যে খুব একটা কার্যকর তার পক্ষে যথেষ্ট প্রমাণ নেই।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

one × 5 =