Templates by BIGtheme NET
২৩ জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ , ৬ জুন, ২০২০ ইং , ১৩ শাওয়াল, ১৪৪১ হিজরী
Home » জাতীয় » করোনা সংক্রমন রোধে তামাক বন্ধের সুপারিশ

করোনা সংক্রমন রোধে তামাক বন্ধের সুপারিশ

প্রকাশের সময়: মে ২০, ২০২০, ৩:১১ অপরাহ্ণ

করোনাভাইরাস পরিস্থিতি মোকাবিলায় দেশের তামাক কোম্পানিগুলোর উৎপাদন, সরবরাহ,বিপণন এবং তামাক পাতা কেনা বেচা কার্যক্রম সাময়িকভাবে বন্ধ করার জন্য শিল্প মন্ত্রণালয়কে অনুরোধ জানিয়েছে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়। মঙ্গলবার ১৯ মে এক চিঠির মাধ্যমে এই অনুরোধ জানায় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়।

চিঠিতে বলা হয়েছে, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা তামাককে কোভিড-১৯ সংক্রমণে সহায়ক হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে।
ধূমপানের কারণে শ্বাসতন্ত্রের নানাবিধ সংক্রমণ এবং শ্বাসজনিত রোগ তীব্র হওয়ার ঝুঁকি বেড়ে যায়। ফলে কোভিড-১৯ সহজেই সংক্রমন হয়।

বিশ্বস্বাস্থ্য সংস্থা সম্প্রতি জানিয়েছে, অধূমপায়ীদের তুলনায় ধূমপায়ীদের কোভিড-১৯ সংক্রমণে মারাত্মকভাবে অসুস্থ হওয়ার সম্ভাবনা অনেক বেশি। এ ছাড়া কোভিড-১৯ এ আক্রান্ত ধূমপায়ীর মৃত্যুঝুঁকিও ১৪ গুণ বেশি।

এনবিআর এর তথ্যমতে তামাক খাত থেকে যে অর্থ রাজস্ব হিসাবে সরকার পায়, তার চেয়েও অনেক বেশি অর্থ সরকারি কোষাগার থেকে তামাকজনিত রোগের চিকিৎসা বাবদ ব্যয় হয়।

এক গবেষণায় বলা হয়, দেশের মাত্র ২৫ ভাগ রোগীও যদি সরকারি স্বাস্থ্য সেবা গ্রহণ করে তবে বাংলাদেশে তামাকজনিত কারণে প্রতিবছর ১১ হাজার কোটি টাকা ব্যয় হয়, যা তামাক খাত থেকে প্রাপ্ত রাজস্বের দ্বিগুণ-এর বেশি।

এছাড়া তামাকজনিত কারণে ১২ লক্ষ মানুষ ক্যান্সার, যক্ষা, হৃদরোগ, হাঁপানি, এজমা, ডায়বেটিস, উচ্চরক্তচাপসহ ৮টি কঠিন রোগে আক্রান্ত হয়, যার মধ্যে ৫৭ হাজার মানুষ মৃত্যুবরন করে এবং ৩ লক্ষ ৮২ হাজার মানুষ পঙ্গুত্ব বরণ করে।

তবে তামাক বন্ধে কিছু অর্থনৈতিক জটিলতাও রয়েছে বলে জানিয়েছেন অর্থনীতিবিদরা। দেশে অন্তত আড়াই লাখ শ্রমিক তামাক উৎপাদন ও বন্টন ব্যবস্থার মাধ্যমে সরাসরি উপার্জন করে।

এই সংকটের দিনে তামাক বন্ধ করে দিলে আড়াই লাখ পরিবার সরাসরি উপার্জনহীন হয়ে পড়বে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

four × 5 =