Templates by BIGtheme NET
১৯ জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ , ২ জুন, ২০২০ ইং , ৯ শাওয়াল, ১৪৪১ হিজরী
Home » করোনাভাইরাস » প্লাজমায় পাওয়া যাচ্ছে এন্টিবডি 
করোনার চিকিৎসায় খুলতে পারে নতুন দিগন্ত

প্লাজমায় পাওয়া যাচ্ছে এন্টিবডি 
করোনার চিকিৎসায় খুলতে পারে নতুন দিগন্ত

প্রকাশের সময়: মে ১৮, ২০২০, ৫:৪০ অপরাহ্ণ

করোনা রোগের চিকিৎসায় গত ৯ মে শনিবার দেশে প্রথমবার প্লাজমা দিয়েছিলেন করোনাজয়ী দুই চিকিৎসক। গবেষকরা সেই প্লাজমায় এন্টিবডির সন্ধান পেয়েছেন। এর ফলে প্লাজমা থেরাপির মাধ্যমে রোগীকে করোনামুক্ত করা সম্ভব হবে বলে মনে করছেন গবেষকরা।

প্লাজমা এন্টিবডি গবেষণা প্রতিষ্ঠান কিউর এন্ড স্মাইল জানিয়েছে, দুজনের প্লাজমায় যথেষ্ট এন্টিবডি রয়েছে। কিছু পরীক্ষা-নিরীক্ষার পরই এই প্লাজমা করোনার চিকিৎসায় প্রয়োগ করা যাবে। করোনা চিকিৎসায় এই পদ্ধতি বিশ্বজুড়ে ভালো ফলাফল দিতে থাকায় বাংলাদেশেও এর যাত্রা শুরু হলো।

গবেষকরা বলছেন, প্লাজমা হলো রক্তের জলীয় অংশ। রক্তের তিন প্রকারের কণিকা বাদ দিলে যে অংশ বাকি থাকে, সেটাই রক্তরস। কোনো মেরুদণ্ডী প্রাণীর শরীরের রক্তের প্রায় ৫৫ শতাংশ রক্তরস থাকে।

যারা ইতিমধ্যে করোনার সঙ্গে যুদ্ধ করে বেঁচে ফিরেছেন, তাদের শরীরে করোনা মোকাবেলার এন্টিবডি তৈরি হয়েছে। অভিজ্ঞতা সম্পন্ন এসব এন্ডিবডি জমা থাকে রক্তের প্লাজমায়। এই রক্ত করোনা রোগীর শরীরে প্রবেশ করিয়ে ভাইরাসককে মোকাবেলা করার পদ্ধতির নাম প্লাজমা থেরাপি ।

এ বিষয়ে প্লাজমা-সংক্রান্ত সরকারি কারিগরি উপ-কমিটির প্রধান ও ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের হেমাটোলোজি বিভাগের প্রধান ডা. এম এ খান বলেন, আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে রোগীর শরীরে প্লাজমা পুশ করতে পারবো। একজনের শরীরে ১:১৬০ অ্যান্টিবডি থাকতে হবে। সংগ্রহ করা প্লাজমা পরীক্ষা করেই আক্রান্ত ব্যক্তিদের চিকিৎসার কাজে ব্যবহার করা হবে।

সাধারণ জনগণ যারা করোনা থেকে সুস্থ হয়েছেন, তাদেরকেও প্লাজমা দেয়ার জন্য এগিয়ে আসার আহবানও জানান তিনি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

three × 3 =