Templates by BIGtheme NET
২৩ চৈত্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ , ৬ এপ্রিল, ২০২০ ইং , ১২ শাবান, ১৪৪১ হিজরী
Home » বিজ্ঞান- প্রযুক্তি » সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে কোরোনা ভাইরাস
ভুল তথ্য বা গুজব ছড়ালে ব্যবস্থা (ভিডিও)

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে কোরোনা ভাইরাস
ভুল তথ্য বা গুজব ছড়ালে ব্যবস্থা (ভিডিও)

প্রকাশের সময়: ফেব্রুয়ারি ৭, ২০২০, ৪:০৫ অপরাহ্ণ

বিশেষ সংবাদ: করোনাভাইরাসে মৃত্যু বা আক্রান্ত হওয়ার সংখ্যা নিয়ে ফেক সংবাদ পরিবেশন করছে বিভিন্ন সংবাদ ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম। আর সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবহারকারীরা হতাহতের প্রকৃত তথ্য না জেনেই ফেক নিউজ প্রচারে অংশ নিচ্ছে। এসব ফেক সংবাদের কারণে আতঙ্কিত হয়ে পড়ে সাধারণ মানুষ।

করোনাভাইরাস নিয়ে ভুল তথ্যের প্রসার রোধে উদ্যোগ নিয়েছে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমগুলো। চলুন জেনে নিই সেসব উদ্যোগ সম্পর্কে।

ফেসবুক: ৬ ফেব্রুয়ারি ফেসবুক ঘোষণা দিয়েছে, করোনাভাইরাস–সংক্রান্ত ভুয়া তথ্যের প্রসার রোধে অতিরিক্ত সতর্কতা নেবে তারা। তথ্যের সত্যতা যাচাইয়ের জন্য তৃতীয় পক্ষের (থার্ড পার্টি) প্রতিষ্ঠানের ওপর নির্ভর করে ফেসবুক। এই যাচাইকারীরা যেসব পোস্টে ভুয়া তথ্য আছে বলে চিহ্নিত করেছে, সেগুলো ব্যবহারকারীর নিউজফিডে কম দেখাচ্ছে তারা।

টিকটক: এদিকে টিকটক অ্যাপে কেউ করোনাভাইরাস হ্যাশট্যাগ লিখে খুঁজলে ব্যবহারকারীদের সতর্কতামূলক নোটিফিকেশন পাঠানো হচ্ছে। তাতে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার মতো নির্ভরযোগ্য উৎস থেকে নির্ভুল তথ্য খুঁজতে উৎসাহিত করা হচ্ছে।

টুইটার: টুইটারে কেউ করোনাভাইরাস লিখে খুঁজলে ‘সেন্টারস ফর ডিজিজ কন্ট্রোল অ্যান্ড প্রিভেনশন’ থেকে পাওয়া সঠিক তথ্য জানতে ব্যবহারকারীকে উৎসাহিত করা হচ্ছে।

ইউটিউব: করোনাভাইরাস লিখে খুঁজলে দ্য নিউইয়র্ক টাইমস–এর মতো নির্ভরযোগ্য সূত্রের খবরের লিংক দেখাচ্ছে ভিডিও ভাগাভাগির প্ল্যাটফর্ম ইউটিউব। যেসব ভিডিওতে ভুয়া তথ্য থাকতে পারে বলে তারা মনে করে, সেগুলো ব্যবহারকারীর সামনে কম দেখানো হয়। এর আওতায় রয়েছে করোনাভাইরাসও।

উল্লেখ্য, শত চেষ্টা সত্ত্বেও এই সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমগুলোর পক্ষে করোনাভাইরাস সম্পর্কে ভুয়া তথ্য প্রসার শতভাগ রোধ করা কার্যত অসম্ভব। এসব ক্ষেত্রে ব্যবহারকারীকেই দায়িত্বের পরিচয় দেওয়ার আহ্বান জানানো হচ্ছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

four × 4 =