Templates by BIGtheme NET
৩০ শ্রাবণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ , ১৪ আগস্ট, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ , ২৩ জিলহজ, ১৪৪১ হিজরি
Home » বিশেষ সংবাদ » ফেসবুকে এখনো কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে আনসারুল্লাহ বাংলা টিম

ফেসবুকে এখনো কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে আনসারুল্লাহ বাংলা টিম

প্রকাশের সময়: ডিসেম্বর ১৫, ২০১৯, ১:০২ অপরাহ্ণ

নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গি সংগঠন আনসার আল ইসলাম যা আনসারুল্লাহ বাংলা টিম-এবিটি) নামে পরিচিত। নিষিদ্ধ ঘোষিত এই জঙ্গি সংস্থাটি লোক নিয়োগের জন্য বেশ কয়েকটি ফেসবুক অ্যাকাউন্টের সন্ধান পেয়েছে পুলিশের অ্যান্টি টেররিজম ইউনিট-এটিইউ)।

অ্যাকাউন্টগুলো হলো- ভয়েস অফ ইসলাম, আল ফেরদৌস আর্কাইভ, খায়রুল ইসলাম ও নিখোঁজ আলো l কিছু অ্যাকাউন্ট এখনো সক্রিয় বলে জানান অ্যান্টি টেররিজম ইউনিট। কয়েক বছর আগে আনসারুল্লাহ বাংলা টিমের সদস্যরা মুক্ত চিন্তার লেখক ও ব্লগারদের হত্যা করে দেশে আতঙ্ক সৃষ্টি করেছিল।

মৌলবাদী এ সংস্থার অ্যাকাউন্টগুলোর মাধ্যমে তহবিল সংগ্রহ, প্রশিক্ষণ, আগ্নেয়াস্ত্র ও পরিকল্পনার জন্য একে অপরের সাথে যোগাযোগ করে থাকে। এবিটি-র মতো, বেশিরভাগ জঙ্গি তাদের নিজ নিজ সংগঠনের কর্মকাণ্ডের জন্য ফেসবুকসহ অন্যান্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবহার করছে।

কাউন্টার টেররিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম (সিটিটিসি) ইউনিটের সর্বশেষ তথ্য অনুসারে, প্রায় ৮২ শতাংশ জঙ্গি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবহার করে থাকে। প্রায় ৫৬ শতাংশ জঙ্গি বিশ্ববিদ্যালয়ের স্নাতক।

যদিও গবেষণায় দাবি করা হয়েছে যে, ২০১৬ সালের তুলনায় গত কয়েক বছরে জঙ্গিদের তৎপরতা অনেকটা হ্রাস পেয়েছে। সম্প্রতি গ্রেপ্তার হওয়া চার উগ্রপন্থীর স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি আতঙ্ক সৃষ্টি করেছে। তারা নাশকতার কর্মকাণ্ড পরিচালনার জন্য পুনর্গঠিত হচ্ছে বলে জানান।

গত ৮ ডিসেম্বর এন্টি টেরোরিজম ইউনিট নোয়াখালীর সুধরমপুর থেকে মাহমুদুর রহমান, আবদুল্লাহ কবির, আরিফ হোসেন ও আনোয়ার হোসেন এ চারজনকে গ্রেপ্তার করা হয়। তাদের গ্রেপ্তারের সময় পুলিশ তাদের কাছ থেকে তথাকথিত জিহাদি বই জব্দ করেছে।

বইগুলো হলো- সালাউদ্দিন জাহাঙ্গীরের লেখা ‘গেরিলা যুদ্ধের নায়ক’, মাওলানা ওমরের রচিত ‘মাহাদী ও দাজ্জাল’, মোহাম্মদ যুবায়ের হোসেনের লেখা ‘আল্লাহর পথে সংগ্রাম’ এবং শহীদ ইউসুফ আলীর লেখা ‘মুজাহিদের ফিটনেস প্রশিক্ষণ’। এর মধ্যে ‘গেরিলা যুদ্ধের নায়ক’ বইটি ওয়েবসাইটে বিক্রয়ের জন্য পাওয়া যাচ্ছে।

জব্দ করা বইগুলো নিষিদ্ধ ও বন্ধ করার বিষয়ে কর্তৃপক্ষ উদ্যোগী হবে কিনা ও যে ফেসবুক আইডিগুলোর সন্ধান পাওয়া গেছে সেগুলো সম্পর্কে সন্ত্রাস বিরোধী ইউনিটের পুলিশ সুপার ( সাইবার, অর্গানাইজড ক্রাইম অ্যান্ড টেরর ফিনান্স) ও ‍মুখপাত্র মোঃ মাহিদুজ্জামানের সাথে যোগাযোগ করা যায়নি। তাই বিষয়ে কর্তৃপক্ষের সিদ্ধান্ত কি তা জানা যায়নি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

10 − 5 =