Templates by BIGtheme NET
২২ অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ , ৬ ডিসেম্বর, ২০১৯ ইং , ৮ রবিউস-সানি, ১৪৪১ হিজরী
Home » বিশেষ সংবাদ » আওয়ামী লীগের নেতৃত্বেও থাকছে চমক

আওয়ামী লীগের নেতৃত্বেও থাকছে চমক

প্রকাশের সময়: নভেম্বর ৩০, ২০১৯, ৩:০৯ অপরাহ্ণ

আওয়ামী লীগের সহযোগী ও ভ্রাতৃপ্রতিম সংগঠনের সম্মেলনে নেতৃত্বের যে পরিবর্তন হয়েছে সেই ধারাবাহিকতা থাকবে দলের কেন্দ্রীয় কাউন্সিলেও। সে বিবেচনায় বর্তমান কমিটির নিস্ক্রিয় ও বিতর্কিত নেতাদের বাদ দেওয়া হবে। এটা অনেকটাই নিশ্চিত। এছাড়া এবারের কাউন্সিলে দলের নেতৃত্বে থাকবে নতুন চমক, এটা মনে করছেন সিনিয়র নেতারা।

দলের সিনিয়র নেতারা বলছেন, এতদিন যারা সংগঠনকে উপেক্ষা করে ব্যবসা-বাণিজ্য নিয়ে ব্যস্ত ছিলেন, সম্পাদকমণ্ডলীর যেসব সদস্য দায়িত্ব পালনে সাফল্য দেখাতে পারেননি কেন্দ্রীয় কমিটিতে তাদেরকে রাখা হবে না। এ ক্ষেত্রে ছাত্রলীগ ও যুবলীগের সাবেক নেতাদের মধ্যে যাদের ভাবমূর্তি পরিচ্ছন্ন তারাই স্থান পাবেন কমিটিতে। নবীন-প্রবীণের সমন্বয়ে কমিটিতে আসছে চমক।

দীর্ঘদিন ধরেই আওয়ামী লীগ সভানেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দল ও সরকারকে আলাদা করার কথা বলে আসছেন। সে হিসেবে যারা বর্তমানে মন্ত্রিসভায় রয়েছেন, তাদের কেউ কেউ বাদ পড়তে পারেন কমিটি থেকে। আবার কাউকে কাউকে শুধু সদস্য করা হতে পারে।

এসম্পর্কে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেন, এটা ডিসাইড করার মালিক আমাদের সভানেত্রী। গঠনতন্ত্রে এই ক্ষমতা দেওয়া আছে। তিনি নির্ধারণ করবেন কে আসবে দলে। আমাদের দলে শেখ হাসিনা ছাড়া আরও কেউ অপরিহার্য নন। আমরা কেউই অপরিহার্য নই।

আওয়ামী লীগের বর্তমান কমিটিতেই একটি সদস্য ও প্রেসিডিয়ামের দুটি সদস্য পদ খালি আছে। সেগুলো সম্মেলনের পর পূরণ করা হবে। এবারের সম্মেলনে বয়সজনিত কারণে এবং বিগত সময়ে মন্ত্রিসভায় দায়িত্ব পালনকালে নানা বিতর্কের কারণে প্রেসিডিয়াম থেকে উপদেষ্টা পরিষদে স্থান হবে কয়েকজন প্রভাবশালী নেতার।

এ ছাড়া দীর্ঘদিন যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও সাংগঠনিক সম্পাদকের দায়িত্ব পালনকারী কয়েকজন সিনিয়র নেতাকে দেখা যেতে পারে প্রেসিডিয়ামে। কেউ কেউ রয়েছেন বাদের তালিকাতেও। দুই বা তারও বেশি সময় কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ও বিভিন্ন সম্পাদকমণ্ডলীর দায়িত্ব পালন করেছেন এমন কয়েকজন সাবেক ছাত্রলীগ নেতাকে যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও সাংগঠনিক সম্পাদক পদে দেখা যেতে পারে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক আওয়ামী লীগের একাধিক গুরুত্বপূর্ণ নেতা জানান, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দলে পরিবর্তনের যে ধারা শুরু করেছেন, তা ইতিমধ্যেই দৃশ্যমান হয়েছে। দলের গুরুত্বপূর্ণ পদে থেকে যারা ক্ষমতার অপব্যবহার করে নেতিবাচক দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন তাদের কেউই আর দায়িত্বে থাকতে পারবেন না। কেন্দ্রীয় কমিটির গুরুত্বপূর্ণ অনেক পদেই এবার চমক থাকতে পারে।

এ প্রসঙ্গে আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য কাজী জাফরউল্লাহ বলেন, ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগের সম্মেলনে নতুন নেতৃত্ব আসার পরই বোঝা যাবে, কেন্দ্রে কেমন নেতৃত্ব আসবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

10 + seventeen =