Templates by BIGtheme NET
৩০ অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ , ১৪ ডিসেম্বর, ২০১৯ ইং , ১৬ রবিউস-সানি, ১৪৪১ হিজরী
Home » জাতীয় » জাবির বামপন্থী শিক্ষক সাঈদ ফেরদৌস ও রায়হান রাইনের ফোনালাপ ফাঁস (ভিডিও)

জাবির বামপন্থী শিক্ষক সাঈদ ফেরদৌস ও রায়হান রাইনের ফোনালাপ ফাঁস (ভিডিও)

প্রকাশের সময়: নভেম্বর ২৩, ২০১৯, ১২:২৬ পূর্বাহ্ণ

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ফারজানা ইসলামের অপসারণ, আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের ওপর ছাত্রলীগের হামলা ও বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ ঘোষণার প্রতিবাদে নতুন কর্মসূচি দিয়েছে আন্দোলনকারীরা। তিন দফা দাবিতে আগামী ২৩ নভেম্বর শনিবার বিকেলে রাজধানীর শাহাবাগে সমাবেশ করবে তারা। ইতোমধ্যে সমাবেশে লোক জাময়েত ও আন্দোলন সফলের পরিকল্পনা ফাঁস হয়েছে। জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের বামপন্থি শিক্ষক অধ্যাপক রায়হান রাইন ও অধ্যাপক সাঈদ ফেরদৌসের একটি ফোনালাপ ‘বাংলাদেশের কথা’র হাতে এসেছে।

যেখানে দেখা যায়, আন্দোলনের সমন্বয়ক অধ্যাপক রায়হান রাইন ও বামপন্থি শিক্ষক অধ্যাপক সাঈদ ফেরদৌস সমাবেশে লোক জমায়েতের বিষয়ে চিন্তিত। মূলত, আন্দোলনে শিক্ষার্থীদের সম্পৃক্ততা না থাকার কারণেই বামপন্থি শিক্ষকরা সমাবেশ করতে বিপাকে পড়ছেন। তারপরও তারা চাচ্ছেন এই আন্দোলনকে দীর্ঘ সময় ধরে চালিয়ে যেতে। যার কারণেই এই সমাবেশ সফল করার চেষ্টা করছেন।

নিচে ফোনালাপ হুবহু তুলে ধরা হলো :
রায়হান : হ্যাঁ সাঈদ ভাই
সাঈদ : হ্যাঁ রায়হান
রায়হান: হ্যাঁ বলেন।
সাঈদ : আমাকে বিকালে মুশফিক ফোন করে বলে। যে, কালকের সমাবেশে কারাকারা আসছে? আমি বললাম কারাকারা আসেছে এটাতো আমি জানি না। আমাকে তো কেউ কার সাথে যোগাযোগ করতে হবে এ বিষয়ে কিছু বলেনি। বলে আনু স্যার আসবে? আমি বললাম আমিতো জানি না। সৈয়দ আবুল মকসুদ তারপর এরাএরা কি আসবে? আমি বললাম, এদের সাথে যোগাযোগ করার কথা নাকি? কারণ আমার সাথে এদের ব্যক্তিগত যোগাযোগ নাই। এদেরকে ধরতে হবে কারো না কারো মাধ্যমে। যদি যোগাযোগ করতে হয় তাহলেতো আমাকে সেটা বলতে হবে। তারপর না আমি যোগাযোগ করবো।
রায়হান : ও। আপনি ওইদিন ছিলেন না বোধ হয়। ওইদিন মিটিংয়ে ছিলেন না তো? কিন্তু আপডেটটা জানানো দরকার ছিলো।
সাঈদ : কিন্তু মিটিংয়ের পরে আমি বারবার বললাম যে, কোথায় কোথায় যোগাযোগ হচ্ছে? কারাকারা যোগাযোগ করছে? জমায়েত কিভাবে বাড়ানো হবে? আমাকে তো তখনো কেউ লেখে নাই আমিতো গ্রুপ চ্যাটেই এগুলো লেখলাম। তারপরও কেউ বলে নাই যে, কিছু গেস্টকে বলা দরকার। এখনতো কাউকেই বলা হয় নাই।
রায়হান : কি জানি, কি অবস্থা হবে কালকে?
সাঈদ : এখনতো কাউকেই আমরা বলি নাই। এখন আবুল মকসুদ বা কাউকে বলতে হয় তাহলে তুমি আনু স্যারকে একটু বল যে, স্যার আপনি কি আসতেছেন? আর আপনি কাকে কাকে একটু আনবেন? বা কার কার সাথে যোগাযোগ করবেন? এটা একটু তুমি বলো তাহলে। শাহাবাগ তো ক্যাম্পাস না। তাহলে আসে পাশে যদি লোকজন ফ্রি থাকে তাহলে আসতে পারবে। কিন্তু এটা আনু স্যারকে একটু বল তুমি। ঠিক আছে?
রায়হান : আনু স্যারকে আপনিও বলতে পারেন।
সাঈদ : হ্যাঁ আনু স্যারকে আমিও বলতে পারি। ঠিক আছে। ওকে

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

twelve + one =