Templates by BIGtheme NET
২৯ অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ , ১৩ ডিসেম্বর, ২০১৯ ইং , ১৫ রবিউস-সানি, ১৪৪১ হিজরী
Home » জাতীয় » সিন্ডিকেট ধরতে মাঠে গোয়েন্দারা
পেঁয়াজের পথ ধরেছে চাল, তেল, চিনি

সিন্ডিকেট ধরতে মাঠে গোয়েন্দারা
পেঁয়াজের পথ ধরেছে চাল, তেল, চিনি

প্রকাশের সময়: নভেম্বর ১৮, ২০১৯, ১:০৭ অপরাহ্ণ

কয়েকটি কারণেই দেশে বেড়েছিলো পেঁয়াজের দাম। কিন্তু এই সুযোগে একটি সিন্ডিকেট পেঁয়াজের দামকে আরো অস্বাভাবিক করে তোলে। এর মাঝে পেঁয়াজের দাম কিছুটা কমতে শুরু করলেও হঠাৎ করে বাড়তে শুরু করেছে চাল, চিনি ও তেলের দাম।

জানা গেছে, বর্তমানে চাল, চিনি ও তেলের যথেষ্ট মজুত থাকলেও একটি সুযোগসন্ধানী চক্র দাম বৃদ্ধির চেষ্টা করে যাচ্ছে। এদিকে বাজারে অস্থিরতা সৃষ্টিকারীদের খুঁজে বের করতে ১৫ নভেম্বর থেকে মাঠে নেমেছেন কয়েকটি গোয়েন্দা সংস্থার সদস্য। এছাড়া ভোক্তা অধিকার সংরক্ষন অধিদপ্তরের ৩১ টিমও মাঠে কাজ করছে বলে জানা গেছে।

জানা গেছে, ভারত রফতানি বন্ধ করায় প্রথম ধাপে দাম বাড়ে পেঁয়াজের। তখন তুরস্ক, মিয়ানমার, ও মিশর থেকে পেঁয়াজ আমদানির সিদ্ধান্ত নেয় সরকার। কিন্তু সেই পেঁয়াজ আসতে যথেষ্ট সময় দরকার। আর এইসময়টাকেই পূঁজি করে পিঁয়াজকে আকাশে নিয়ে যায় চক্রটি।

গোয়েন্দারা বলছেন, বহু ব্যবসায়ী ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের অজুহাতে সব ধরনের চালের দাম বৃদ্ধি করেছেন। এর সঙ্গে তাল মিলিয়ে তেল ও চিনির দামও বাড়িয়েছে কেউ কেউ।

সূত্র জানায়, পেঁয়াজ কারসাজির সঙ্গে জড়িতদের খুঁজে বের করার চেষ্টা করছে গোয়েন্দারা।  কারা, কত দামে, কোন দেশ থেকে, কী পরিমাণ পেঁয়াজ আমদানি করেছে, তা খতিয়ে দেখা হবে। আমদানি করা পেঁয়াজ কী দরে বিক্রি করা হয়েছে, সে খবরও নেবেন গোয়েন্দা সংস্থার সদস্যরা। আমদানি মূল্য ও বিক্রয় মূল্যের মধ্যে সামঞ্জস্য না থাকলেই ব্যবস্থা নেবেন তারা।

একই সঙ্গে দেশি পেঁয়াজের উৎপাদন খরচ, পরিবহন ব্যয় ও সংরক্ষণের কারণে পঁচে যাওয়ার লোকসান বাদ দিয়ে মুনাফা যুক্ত করে কে কত দামে বিক্রি করেছেন, কেউ মজুত করেছেন কিনা, তাও খতিয়ে দেখা হবে। দামবৃদ্ধির পেছনে কোনও মহলের কারসাজি, সিন্ডিকেট বা ষড়যন্ত্র আছে কিনা, গোয়েন্দারা তা খোঁজ নিয়ে দেখবেন।

এদিকে রোববার ১৭ নভেম্বর কুষ্টিয়ার ভেরামারায় বিষ দিয়ে পেঁয়াজের ফসল নষ্ট করার অভিযোগ উঠেছে। ভুক্তভোগী কৃষক ভেরামারা মডেল থানায় এ বিষয়ে একটি মামলাও করেছেন। পেঁয়াজ চক্রের সঙ্গে এর কোন সম্পর্ক আছে কিনা সেটিও খতিয়ে দেখা হবে বলে জানিয়েছেন গোয়েন্দারা।

বাণিজ্য মন্ত্রণালয় বলছে, কেউ পেঁয়াজের অবৈধ মজুত করলে, কারসাজি করে অতিরিক্ত মুনাফা অর্জনের চেষ্টা করলে বা অন্য কোনও উপায়ে সংকট সৃষ্টির চেষ্টা করলে, তাদের বিরুদ্ধে আইন অনুযায়ী কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে। বাজার মনিটরিংয়ে তাদের ৩১টি টিম কাজ করছে। জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতর বাজার অভিযান জোরদার করেছে। এছাড়া দেশের বিভিন্ন স্থানে উৎপাদিত দেশীয় পেঁয়াজ বাজারে আসতে শুরু করেছে বলেও জানায় মন্ত্রণালয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

fourteen + 15 =