Templates by BIGtheme NET
২৩ অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ , ৭ ডিসেম্বর, ২০১৯ ইং , ৯ রবিউস-সানি, ১৪৪১ হিজরী
Home » বিনোদন » মাহির বিরুদ্ধে টাকা হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগ পরিচালকের

মাহির বিরুদ্ধে টাকা হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগ পরিচালকের

প্রকাশের সময়: নভেম্বর ৭, ২০১৯, ৯:৩৭ পূর্বাহ্ণ

প্রতিবেদক: ঢাকাই চলচ্চিত্রে এ সময়ের জনপ্রিয় চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহির বিরুদ্ধে পারিশ্রমিকের বাইরে বাড়তি টাকা নেয়ার অভিযোগ উঠেছে। ‘অবতার’ সিনেমার পরিচালক মাহমুদ শিকদার এ অভিযোগ তুলেছেন।

এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘ঢাকা অ্যাটাক’ সিনেমায় যে পোশাক পরে গানে অংশ নেন, সেই পোশাক পরেই আমার অবতার সিনেমার গানে অংশ নেন মাহি। এই পুরোনো পোশাকের জন্য ২৫ হাজার টাকা নিয়েছেন তিনি। পুরোনো পোশাক নতুন বলে আমার কাছ থেকে কয়েক দফায় কয়েক লাখ টাকা হাতিয়ে নেন। পরবর্তীতে পোশাকগুলো ফেরত দেননি। শুটিং বন্ধ করে দিবেন, সেই ভয়ে তখন প্রতিবাদ করিনি।

তিনি আরও বলেন, মাহি আমাকে পোশাক রেডি করার আগেই আগাম বাজেট দেন। তিনটি পোশাকের জন্য ৭৫ হাজার টাকা নেন। এটি তার বাড়তি ইনকামের রাস্তা। শুটিংয়ের সময় মাহি যে পোশাক পরেন তা ছেঁড়া ছিল। এটি অন্য সিনেমার পোশাক ছিল। তবে সে বাধ্য করেছেন টাকা দিতে। শুধু পোশাকই নয় যাতায়াত ভাতাসহ নানা ইস্যুতে পরিচালক ও প্রযোজকদের জিম্মি করেন শিল্পীরা। মাহি উত্তরা থেকে আশুলিয়া যেতে কনভেন্স নিয়েছেন ৪ হাজার টাকা, মানিকগঞ্জ যেতে নিয়েছেন ৮ হাজার টাকা।

তিনি অভিযোগ করেন, সিনেমাটি মুক্তির সময় প্রচার বিমুখ ছিলেন মাহিয়া মাহি। সিনেমার প্রচারণার জন্য মাহির সঙ্গে বারবার যোগাযোগ করার চেষ্টা করলেও সে ফোন ধরেনি। মাহি যদি প্রচারণায় অংশ নিতেন তাহলে সিনেমাটি ভালো সাড়া পেত।

মাহিয়া মাহি বলেন, পরিচালক প্রমাণ করতে পারলে পোশাকের টাকা ফেরত দেব। তার সঙ্গে যে অনুযায়ী আমার চুক্তি হয়েছে সে অনুযায়ী তার সঙ্গে কাজ করেছি। চুক্তির সময় এ বিষয়গুলো উল্লেখ ছিল। এখন যদি এ রকম অভিযোগ করে তাহলে আমার কিছু করার নেই।

চলচ্চিত্রের পোশাক নিয়ে শিল্পীদের কারসাজি নতুন কিছু নয়। শিল্পীদের বিরুদ্ধে এমন অভিযোগ অহরহ শোনা যায়। সম্প্রতি চলচ্চিত্র পরিচালক, প্রযোজক ও শিল্পী সমিতিসহ সিনেমার ১৮টি সংগঠন মিলে একটি নীতিমালা তৈরি করেছেন। এতে বলা হয়েছে, পোশাকের জন্য কোনো শিল্পীকে আলাদা কোনো টাকা প্রদান করা হবে না। গল্পের প্রয়োজনে শিল্পীদের ড্রেস প্রোডাকশন থেকে তৈরি হবে, শুটিং শেষে সকল ড্রেস শিল্পীকে প্রোডাকশনের কাছে ফিরিয়ে দিতে হবে। কোনো ড্রেস কোনো শিল্পীর পছন্দ হলে সেটা ক্রয়মূল্য দিয়ে শিল্পী শুটিং শেষে নিতে পারবেন। ১ নভেম্বর থেকে এই নিয়ম চালু হয়েছে।

এতে আরও বলা হয়েছে, যেসব শিল্পী ১ লাখ টাকার উপরে পারিশ্রমিক নেন, তারা কোনো প্রকার যাতায়াত ভাতা পাবেন না।

খুব কম সময়ে দর্শক হৃদয়ে জায়গা করে নিয়েছেন হালের জনপ্রিয় নায়িকা মাহিয়া মাহি। বর্তমান চলচ্চিত্রের মন্দার বাজারে তার পারিশ্রমিক ১০ লাখ টাকা। বেশি পারিশ্রমিক হলেও তাকে নিয়েই কাজ করছেন অনেক নির্মাতা-প্রযোজক।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

18 − six =