Templates by BIGtheme NET
২৯ অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ , ১৩ ডিসেম্বর, ২০১৯ ইং , ১৫ রবিউস-সানি, ১৪৪১ হিজরী
Home » ব্রেকিং নিউজ » ধানমন্ডিতে জোড়া খুন, প্রধান সন্দেহভাজন সুরভি গ্রেপ্তার

ধানমন্ডিতে জোড়া খুন, প্রধান সন্দেহভাজন সুরভি গ্রেপ্তার

প্রকাশের সময়: নভেম্বর ৪, ২০১৯, ৯:০৩ পূর্বাহ্ণ

নিউজ ডেস্ক :

গতকাল রোববার রাত সাড়ে ৯টার দিকে রাজধানীর আগারগাঁও থেকে তাকে গ্রেপ্তার করে ধানমন্ডি থানা পুলিশ। পুলিশের ধানমন্ডি জোনের এডিসি আবদুল্লাহ হেল কাফী বলেন, জিজ্ঞাসাবাদের জন্য সুরভি আক্তারকে ধানমন্ডি থানায় নেয়া হয়েছে। তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে এবং ঘটনার কারণ জানার চেষ্টা চলছে।

শেরেবাংলা নগর থানার ওসি জানে আলম মুন্সি জানান, শেরেবাংলানগরের ইএনটি হাসপাতালের সামনে থেকে সুরভিকে গ্রেপ্তার করা হয়। পরে তাকে ধানমন্ডি থানা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়। এদিকে হত্যাকা-ের ঘটনায় রোববার সকালে নিহত আফরোজার মেয়ে দিলরুবা সুলতানা রুবী বাদি হয়ে ধানমন্ডি থানায় মামলা করেছেন।

এ বিষয়ে ধানমন্ডি থানার ওসি আবদুল লতিফ বলেন, অজ্ঞাত কয়েকজনকে আসামি করে মামলাটি হয়েছে। তবে প্রধান সন্দেহভাজন হিসেবে নতুন গৃহকর্মীকে রাখা হয়েছে। এছাড়া বাসা থেকে স্বর্ণালঙ্কার ও নগদ টাকা-পয়সা খোয়া যাওয়ার বিষয়ে মামলায় বলা হয়েছে। তবে কি পরিমাণ, তা বলা হয়নি। তিনি জানান, পুলিশ ওই গৃহপরিচারিকাকে খুঁজছে। ইতিমধ্যে বিভিন্ন প্রযুক্তি ব্যবহার করে তাকে শনাক্ত ও আটকের চেষ্টা চলছে। চাঞ্চল্যকর এ জোড়া হত্যাকা-ের মোটিভ ও হত্যাকারীদের শনাক্ত করতে থানা পুলিশের পাশাপাশি র‌্যাব, ডিবি, পিবিআই এবং সিআইডিও কাজ করছে। খুব শিগগির সন্দেহভাজন গৃহকর্মীর খোঁজ পাওয়া যাবে বলে আশা প্রকাশ করে এ পুলিশ কর্মকর্তা জানান, মামলার তদন্তের স্বার্থে বেশ কয়েকজনকে হেফাজতে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

মামলার তদন্ত সংশ্লিষ্ট পুলিশের এক কর্মকর্তা বলেন, জোড়া হত্যাকা-ের ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য পুলিশি হেফাজতে থাকা ওই ভবনের নিরাপত্তাকর্মী নুরুজ্জামান এবং দিলরুবার স্বামী গার্মেন্ট ব্যবসায়ী কাজী মনির উদ্দিন তারিমের কর্মচারী বাচ্চুকে সন্দেহের তালিকায় রাখা হয়েছে।
গত শুক্রবার সন্ধ্যায় ধানমন্ডি ১৫ নম্বর সড়কের ২৮ নম্বর বাড়ির এফ-৪ ফ্ল্যাটে আফরোজা বেগম ও গৃহকর্মী দিতিকে গলাকেটে হত্যা করা হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

fourteen − fourteen =