Templates by BIGtheme NET
৯ অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ , ২৩ নভেম্বর, ২০১৯ ইং , ২৫ রবিউল-আউয়াল, ১৪৪১ হিজরী
Home » বিশেষ সংবাদ » ফুড ব্যাংক
দরিদ্রের দুর্দিনের বন্ধু

ফুড ব্যাংক
দরিদ্রের দুর্দিনের বন্ধু

প্রকাশের সময়: অক্টোবর ১৬, ২০১৯, ৯:১৯ অপরাহ্ণ

সিরাজগঞ্জের চৌহালি উপজেলার বরাঙ্গাইল গ্রামের গৃহবধূ কোহিনুর বেগম এই দরিদ্র মানুষদের কাছে ‘আশার আলো’ হিসেবে দেখা দিয়েছেন। অসহায় মানুষের জন্য কিছু করতে হবে- এমন ধারণা থেকে গ্রামের প্রায় ৪০ জন নারীকে নিয়ে দেড় বছর আগে গড়ে তুলেছেন ‘ফুড ব্যাংক’। প্রতি বেলায় রান্নার সময় একমুঠো চাল জমা করেন সদস্যরা। সপ্তাহ শেষে তা জমা দেন ফুড ব্যাংকের চেয়ারম্যান কোহিনুর বেগমের কাছে। এখান থেকে দরিদ্র মানুষদের মাঝে চাল বিলি করেন কোহিনুর।

বন্যা কবলিত এলাকা হিসেবে পরিচিত এই এলাকায় প্রতিবছর প্রায় ৩ হাজার মানুষ বন্যায় ক্ষতিগ্রস্থ হয়। নদী কবলিত এলাকা হওয়ায় এখানে সরকারি ত্রাণ পৌছায় না। এতে এই এলাকার মানুষদের মধ্যে খাদ্য অভাব লেগেই থাকে। কোহিনুর বেগমের এমন উদ্যোগে খুশি এই এলাকার মানুষ।

কোহিনুর বেগম বলেন, আমি গরিব মানুষ। আগে আমি মানুষের বাড়িতে কাজ করে খেতাম। খিদা লাগলে কেমন লাগে আমি তা অনুভব করি। তাই আমার মতো দরিদ্রদের কথা ভেবে এই উদ্যোগ নিয়েছি।

বন্যার্তদের সাহায্যার্থেও কাজ করেন তিনি। মাঝে মধ্যে বিভিন্ন সদস্যরা তার কাছে অর্থও জমা রাখেন। বিভিন্ন জায়গা থেকে প্রাপ্ত অর্থও তিনি সমভাবে দরিদ্রদের মাঝে বিতরণ করেন।

কোহিনুর বেগম এখন স্থানীয়দের মাঝে ‘প্রেরণার উৎস’ হয়ে উঠেছেন বলে এলাকাবাসীরা জানান। এসম্পর্কে আয়েশা বেগম নামে একজন গৃহবধু বলেন, বন্যার সময় আমাদের কোন কাজ ছিলো না। খাদ্য সংগ্রহ অনেক কষ্টকর ছিলো। কিন্তু ফুড ব্যাংক করায় আমাদের এই সমস্যা কিছুটা লাগব হয়েছে।
আর রোহিমা বেগম নামে অন্য একজন বলেন, আমরা কাজ করে খাই। আমরাই আবার আমাদের পাশে দাড়াই। কোহিনুর আপার উদ্যোগই আমাদের এই সুযোগ করে দিয়েছে।

কোহিনুর বেগম নিজ এলাকার বাল্যবিবাহ ও স্যানিটেশন নিয়েও কাজ করেছেন। ইতিমধ্যে তিনটি বাল্য বিয়ে ঠেকিয়ে দিয়েছেন তিনি। কখনও কারও বাড়িতে ঝগড়া-বিবাদ হলে, সেখানেও গিয়ে হাজির হন তিনি। একজন সচেতন সামাজিক নেতা হিসেবে এভাবেই নিরন্তর কাজ করে চলেছেন কোহিনুর বেগম।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

three × 1 =