Templates by BIGtheme NET
১ কার্তিক, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ , ১৬ অক্টোবর, ২০১৯ ইং , ১৬ সফর, ১৪৪১ হিজরী
Home » বিজ্ঞান- প্রযুক্তি » বিশ্বের ৫ কোটি মানুষের জীবন বাঁচিয়েছেন যেই বাংলাদেশি বিজ্ঞানী (ভিডিও)

বিশ্বের ৫ কোটি মানুষের জীবন বাঁচিয়েছেন যেই বাংলাদেশি বিজ্ঞানী (ভিডিও)

প্রকাশের সময়: সেপ্টেম্বর ১৬, ২০১৯, ৩:৩৮ অপরাহ্ণ

ডায়রিয়া বা পানিশূণ্যতা হলে আমরা বাজার থেকে একটা স্যালাইনের প্যাকেট কিনে পানিতে গুলে খেয়ে নিই। কিন্তু একটা সময় ছিলো যখন এই প্যাকেট স্যালাইন সহজপ্রাপ্য ছিলো না। কিন্তু দেশে দরিদ্র শিশু ছিল অগনিত।

১৯৭১ সালে ভারতে যখন বাংলাদেশী শরণার্থী শিবিরে কলেরা ছড়িয়ে যায় তখন এটিকে প্রতিরোধ করার মত তখনো সেইরকম কোন ওষুধ আবিষ্কৃত হয়নি। তখন বাংলাদেশের প্রতিষ্ঠান আইসিডিডিআর,বি গবেষণা করে একটি নতুন ফর্মুলা আবিস্কার করে। আর এই গবেষণার নেতৃত্বে ছিলেন ড. রফিকুল ইসলাম। যার নাম আমরা অনেকেই জানি না।

বিগত ৩০ বছর ধরে এই দেশের লাখ লাখ শিশুকে এক চিমটি লবন, এক মুঠ চিনি বা গুড় ও পরিষ্কার পানির মিশ্রণ খাইয়ে ডায়রিয়ার হাত থেকে রক্ষা করা হয়েছে। শুধু বাংলাদেশ নয়। পৃথিবীব্যাপী প্রায় ৫০ মিলিয়ন (৫ কোটি) লোককে পানিশূন্যতার হাত থেকে রক্ষা করেছে এই মিশ্রণ। যাকে আমরা বলি হাতে তৈরী খাবার স্যালাইন।

স্বাধীনতা যুদ্ধের পর ব্র্যাকের সহায়তায় এই স্যালাইন বানানোর পদ্ধতি পুরো দেশ জুড়ে ছড়িয়ে দেওয়ার কাজ শুরু হয় । তৎকালীন তা “ঢাকা স্যালাইন” নামেও পরিচিত ছিল।

১৯৭৮ সালে ব্রিটিশ চিকিৎসা বিষয়ক পত্রিকা The Lancet ওরস্যালাইনকে বিংশ শতাব্দীর সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ মেডিকেল ইনভেশন হিসেবে স্বীকৃতি দেয়। ১৯৮০ সালে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা এই আবিষ্কারকে স্বীকৃতি দেয়।

এই প্রজন্ম হয়তো কখনোই জানবে না, এই দেশেও একজন বিজ্ঞানী ছিল যার আবিষ্কার এখনো বিশ্বে কোটি কোটি মানুষের জীবন রক্ষা করে চলেছে।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

14 + 1 =