Templates by BIGtheme NET
১ আশ্বিন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ , ১৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ইং , ১৬ মুহাররম, ১৪৪১ হিজরী
Home » আন্তর্জাতিক » ভারতের অর্থমন্ত্রী বলেছেন
তরুণদের রাইড শেয়ারিংয়ে কমেছে গাড়ি বিক্রি

ভারতের অর্থমন্ত্রী বলেছেন
তরুণদের রাইড শেয়ারিংয়ে কমেছে গাড়ি বিক্রি

প্রকাশের সময়: সেপ্টেম্বর ১১, ২০১৯, ৮:৫৮ অপরাহ্ণ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক :

তরুণদের রাইড শেয়ারিংয়ে কমেছে গাড়ি বিক্রি: ভারতের অর্থমন্ত্রী

তরুণ প্রজন্ম গাড়ি না কিনে রাইড শেয়ারিং সার্ভিস ‘উবার’ এবং ‘ওলা’ ব্যবহার করায় গাড়ি শিল্পে এর প্রভাব পড়ছে বলে জানিয়েছেন ভারতের অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামন।

১০ সেপ্টেম্বর চেন্নাইয়ে এক অনুষ্ঠানে দেওয়া বক্তব্যে তিনি একথা জানান বলে এনডিটিভির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।

সীতারামন বলেন, তরুণ প্রজন্ম কিস্তিতে নতুন গাড়ি কেনার চেয়ে ‘উবার’ এবং ‘ওলার’ গাড়ি ব্যবহার করতেই বেশি স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করে, যা দেশের মোটরযান শিল্পে প্রভাব ফেলছে।

এমন পরিস্থিতিতে কেন্দ্রীয় সরকার পাশে থাকতে চায় বলেও জানান তিনি। গাড়ি শিল্পে এই মন্দার ফলে দেশের লাখ লাখ মানুষ কাজ হারাচ্ছেন, এই কথা মনে রেখেই তিনি বলেন, সরকারি প্রতিষ্ঠানগুলো যাতে পুরনো গাড়ির বদলে নতুন গাড়ি কেনার পদক্ষেপ নেয় সে জন্যে তিনি চেষ্টা করছেন।

মন্ত্রী বলেন, বিশেষত অটোমোবাইল সেক্টর বেশ কয়েকটি জিনিস দ্বারা প্রভাবিত হয়েছে। এর মধ্যে রয়েছে বিএস ৬ (ভারত পর্যায় ৬) আন্দোলন, রেজিস্ট্রেশন ফি ইস্যু, যা জুন পর্যন্ত পিছিয়ে রয়েছে এবং সহস্রাব্দের মানসিকতা, যারা এখন গাড়ি কেনার জন্যে ইএমআই দেওয়া পছন্দ করছে না, বরং তার বদলে ‘ওলা’ বা ‘উবার’ ব্যবহার করতে বা মেট্রোতে যেতে পছন্দ করছে।

তিনি বলেন, ‘আমরা সকলেই ধারাবাহিকভাবে বিভিন্ন খাত থেকে অর্থ জোগানোর চেষ্টা করছি এবং অর্থনৈতিক বিভাগের সঙ্গে মতবিনিময় করছি। শুধু দিল্লিতে নয়, সারা দেশ থেকে আমরা এ বিষয়ে মতামত গ্রহণ করছি।’

নরেন্দ্র মোদি সরকারের ক্ষমতায় আসার দ্বিতীয় মেয়াদে ১০০ দিনের সাফল্যের কথা তুলে ধরতে চেন্নাইয়ের ওই অনুষ্ঠানে এসব বলেন তিনি।

এনডিটিভি বলছে, কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রীর এই বক্তব্যের তীব্র সমালোচনা করেছে বিরোধী দল কংগ্রেস। তাদের কটাক্ষ– তবে কি নির্মলা সীতারামন বাস ও ট্রাক বিক্রি কমার জন্যেও সহস্রাব্দের মানসিকতাকেই দায়ী করতে চাইছেন?

ভারতের প্রায় ৩ কোটিরও বেশি মানুষ যুক্ত যে শিল্পের সঙ্গে সেই গাড়ি শিল্প গত কয়েক মাস ধরেই প্রবল অর্থনৈতিক মন্দার সম্মুখীন হচ্ছে। ক্রমশই কমছে গাড়ি বিক্রি।

ভারতের বৃহত্তম দুই চাকার গাড়ি প্রস্তুতকারক হিরো মটোকর্পের গত মাসে বিক্রি ২০ শতাংশ কমেছে। একই সময়ে ৩৪ শতাংশ বিক্রি হ্রাস পেয়েছে মারুতি সুজুকিরও। ট্রাক ও ট্রাক্টরের বিক্রিও অত্যন্ত ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে, অশোক লেল্যান্ডের বিক্রি ৭০ শতাংশ এবং এমএন্ডএমের উৎপাদিত গাড়ির বিক্রি ১৫ শতাংশ কমেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

8 − 7 =