Templates by BIGtheme NET
৮ আশ্বিন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ , ২৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ইং , ২২ মুহাররম, ১৪৪১ হিজরী
Home » বিজ্ঞান- প্রযুক্তি » সব অপরাধের জন্য দায়ী ‘খারাপ বাতাস’ !

সব অপরাধের জন্য দায়ী ‘খারাপ বাতাস’ !

প্রকাশের সময়: সেপ্টেম্বর ৫, ২০১৯, ১০:৪৪ অপরাহ্ণ

বিভিন্ন সামাজিক অপরাধের জন্য সমাজ বিজ্ঞানীরা নানা ধরণের সামাজিক অসঙ্গতিকে দায়ী করেন। কিন্তু সামাজিক অপরাধের পেছনে যে বায়ু দূষণের দায় আছে, এটা হয়তো কেউ হয়তো কল্পনাও করেনি। কারণ বায়ু দূষণ আর মানুষের মন, দুটো তো দুই জগতের ব্যাপার ! এদের সঙ্গেও কি সম্পর্ক থাকতে পারে?

হ্যা! এমনই এক বিস্ময়কর তথ্য দিয়েছেন বিজ্ঞানীরা। সম্প্রতি এক গবেষণায় দেখা গেছে, বায়ু দূষণ মস্তিষ্কের উপর যে প্রভাব ফেলে, তাতে মানুষের বিবেচনা বোধ এলোমেলো হয়ে যেতে পারে। বেড়ে যেতে পারে মানসিক সমস্যা ও অপরাধ প্রবণতা।

২০১১ সালে সেফি রথ নামের লন্ডন স্কুল অব ইকোনমিক্সের এক শিক্ষক বায়ু দূষণের বিভিন্ন প্রভাব নিয়ে ঘাঁটাঘাঁটি করছিলেন। হঠাৎ তার মাথায় এলো, চিন্তাশক্তির উপর এর কোনো প্রভাব পড়ে কিনা-তা পরীক্ষা করে দেখবেন। তিনি শিক্ষার্থীদের রুটিন পরীক্ষার সময় কয়েকটি বৈজ্ঞানিক পরীক্ষাও চালালেন। ফলও এলো বিস্ময়কর। দেখা গেল দূষিত বায়ুতে নিঃশ্বাস নিয়ে আসা শিক্ষার্থীরা বিশুদ্ধ বায়ুতে নিঃশ্বাস নিয়ে আসা শিক্ষার্থীদের চেয়ে খারাপ পরীক্ষা দিয়েছে। তারা অন্যদের চেয়ে পিছিয়ে গেছে।

এই সামান্য বৈষম্য পরবর্তী জীবনেও প্রভাব ফেলে। মানে, কেবল পরীক্ষার দিনটায় যে এলাকার বায়ু দূষণের মাত্রা বেশি থাকবে, সারা জীবনের জন্য সে এলাকার শিক্ষার্থীরা কোনো কারণ ছাড়াই অনেকটা পিছিয়ে যাবে।

রথ এবং তার দল পরবর্তীতে লন্ডনে এই গবেষণা চালান। সেই গবেষণায় দেখা গেছে, যেসব দিনে বায়ু দূষণের মাত্রা বেশি ছিলো, ভয়ংকর সব অপরাধ সেসব দিনেই ঘটেছে।

বিজ্ঞানীরা বলছেন, কল-কারখানা, মোটর গাড়ি বা পুড়ানো কাঠ থেকে মানুষের চুলের প্রায় ৩০ গুণ ছোট PM2.5 কণা তৈরী হয়। যা বাতাসের সঙ্গে মিশে বায়ু দূষণ ঘটায়, এরা পিএম ২.৫ নামেও পরিচিত। এই কণাগুলো মানুষের নিঃশ্বাসে বিঘ্ন ঘটায়।

গবেষকদের মতে, দূষিত বায়ুতে শ্বাস নিলে মস্তিষ্ক প্রয়োজনের চেয়ে কম অক্সিজেন পায়। এরকম অবস্থায় সে যে স্বাভাবিকভাবে কাজ করতে পারে না। তাছাড়া, দূষিত বায়ু মস্তিষ্কে স্নায়বিক সংযোগের ক্ষতি হতে পারে। এই ক্ষতিটা মস্তিষ্কের প্রি-ফ্রন্টাল লোবে হয়। আর, মস্তিষ্কের এই অংশটিই মূলত আমাদের আত্মনিয়ন্ত্রণ, বিবেচনাবোধ ইত্যাদিকে নিয়ন্ত্রণ করে। আর বিবেচনাবোধের অসঙ্গতি থেকেই শুরু হয় যাবতীয় অপরাধ। সে হিসেবে সব অপরাধের জন্য দায়ী দূষিত বা খারাপ বাতাস।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

four × one =