Templates by BIGtheme NET
১১ ভাদ্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ , ২৬ আগস্ট, ২০১৯ ইং , ২৩ জিলহজ্জ, ১৪৪০ হিজরী
Home » রাজনীতি » চামড়া নিয়ে সিন্ডিকেটবাজির অভিযোগ রিজভীর

চামড়া নিয়ে সিন্ডিকেটবাজির অভিযোগ রিজভীর

প্রকাশের সময়: আগস্ট ১৩, ২০১৯, ৩:১২ অপরাহ্ণ

ডেস্ক : আন্তর্জাতিক বাজারে পশুর চামড়া দাম কমার অজুহাতে সরকারের সিন্ডিকেট চামড়া নিয়ে কারসাজি করছে। এমন অভিযোগ করেছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী। মঙ্গলবার নয়াপল্টন দলের কেন্দ্রীয় কার্যলয়ে সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ অভিযোগ করেন।

তিনি বলেন, বাণিজ্য মন্ত্রণালয় চামড়ার বর্গফুট প্রতি একটা হাস্যকর দাম বেধে দিয়ে তাদেরকে (সিন্ডিকেট) সহায়তা করছে। এই অল্প দামের কারণে নীরব প্রতিবাদ হিসাবে সিন্ডিকেটের কাছে বিক্রি না করে কোরবানির চামড়া মাটির নিচে পুঁতে রাখছেন অনেকে। এছাড়া চামড়া ব্যাপকভাবে পাচার হচ্ছে পার্শবর্তী দেশ গুলোতে।

রিজভী বলেন, কুরবানির পশুর চামড়ার টাকা গরীব, মিসকিন, ইয়াতিমদের হক। এই চামড়া বিক্রির টাকা তাদের মাঝেই বিতরণ করার নিয়ম। এটা তাদের ঈদের আনন্দের একটা উৎস। বিএনপি সরকারের সময়ে এদেশে যে চামড়া কয়েক হাজার টাকায় বিক্রি হতো এখন তা বিক্রি হচ্ছে ২/৩ শ’ টাকায়। ৮০ হাজার টাকা দামের গরুর চামড়ার দাম এখন ২২০ টাকা!! এক লাখ টাকার গরুর চামড়া বিক্রি হয়েছে ২২৫ টাকায়।

রিজভী বলেন, সিন্ডিকেট করে এতিমের হক মারার এ কান্ডকারখানা যারা চালাচ্ছে বছরের পর বছর ধরে তারাও নিজেদের ধার্মিক বলে প্রচার করে। এদের হোতা সরকারী দলের এক বড় নেতা। যেভাবে পাট শিল্প ধ্বংস করা হয়েছে ঠিক সেই পথেই ধ্বংস করা হচ্ছে বাংলাদেশের ট্যনারি শিল্প। প্রশ্ন করবার কেউ নাই। জবাব দেয়ার কেউ নাই।

বিএনপির এ মুখপাত্র বলেন, সরকারের দায়বদ্ধহীনতার কারণে দেশের মানুষের ঈদ কেটেছে নিরানন্দে। একদিকে ঈদযাত্রায় সীমাহীন পথের দুর্ভোগ, সারাদেশে ডেঙ্গু মহামারি এবং দেশের বৃহৎ অঞ্চলজুড়ে ত্রান বঞ্চিত বন্যার্ত মানুষের হাহাকার অন্যদিকে গ্রামিন জনপদে সরকারী দলের ক্যাডারদের অত্যাচার সব আনন্দ ম্লান করে দিয়েছে।

‘বাংলাদেশের মানুষ ঈদযাত্রার দুর্ভোগকে দুর্ভোগ হিসেবে মনে করে না। এটা তারা ঈদ আনন্দের অংশ হিসেবে মনে করে। ঈদের আনন্দে মানুষ ডেঙ্গু ভুলে গেছে’ সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের দেওয়া এমন বক্তব্যের সমালোচনা করে রিজভী বলেন, কতটা স্বাভাবিক বোধ-বুদ্ধি শূন্য হলে একজন দায়িত্বপ্রাপ্ত মন্ত্রী এমন উপহাসমুলক অবান্তর কথা বলতে পারেন! তারা মানুষকে মানুষ মনে করেন না, মনে করেন তাদের কেনা ক্রীতদাস।

গতকাল ঈদের দিন বিএনপি চেয়ারপারসনের পরিবারের সদস্যরা তার সাথে সাক্ষাত করার সুযোগ পেয়েছিলেন। স্বজনরা জানিয়েছেন, বেগম খালেদা জিয়া গুরুতর অসুস্থ। তার জীবন এখন সংকটময় অবস্থায় উপনীত হয়েছে। কারাগারে নেয়ার সময় সম্পুর্ন সুস্থ নেত্রী এখন হুইল চেয়ার ছেড়ে উঠতে পারছেন না। ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রনহীন হয়ে গেছে। দেশনেত্রীর উপর ইনস্যুলিনের কার্যকারিতা অনেক কমে গেছে। দেশবাসী দেশনেত্রীর প্রানবাঁচাতে দ্রুত তাঁর মুক্তি চায়। মুক্তি না দিলে জনগন আর বসে থাকবে না। সরকারী ষড়যন্ত্র তছনছ করে দিবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

1 × 3 =