Templates by BIGtheme NET
১১ ভাদ্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ , ২৬ আগস্ট, ২০১৯ ইং , ২৩ জিলহজ্জ, ১৪৪০ হিজরী
Home » ধর্ম ও জীবন » পশু জবাইয়ের সময় কোরবানি দাতার নাম বলা কি জরুরি?

পশু জবাইয়ের সময় কোরবানি দাতার নাম বলা কি জরুরি?

প্রকাশের সময়: আগস্ট ১০, ২০১৯, ১:৪৮ অপরাহ্ণ

মোহাম্মাদ এনামুল হক এনা: কারো জন্য কোরবানী ওয়াজিব হওয়া কিংবা সুন্নত হওয়ার জন্য কোরবানীকারীকে ধনী হওয়া শর্ত। অর্থাৎ তার নিজের খরচপাতি ও সে যাদের খরচ চালায় তাদের খরচপাতির অতিরিক্ত তার কাছে কোরবানী করার অর্থ থাকা। অতএব, কোন মুসলমানের যদি মাসিক বেতন বা আয় থাকে এবং এ বেতন দিয়ে তার খরচ চলে যায়, এর অতিরিক্ত তার কাছে কোরবানীর পশু কেনার অর্থ থাকে তাহলে সে ব্যক্তি কর্তৃক কোরবানী দেয়ার শরয়ি বিধান রয়েছে।

জিলহজ মাসের ১০ তারিখ সকাল থেকে ১২ তারিখ সূর্যাস্তের পূর্ব পর্যন্ত সময়ের মধ্যে কোনো মুসলিম যদি সাহেবে নিসাব অর্থাৎ সাড়ে ৭ ভরি স্বর্ণ বা সাড়ে ৫২ ভরি রুপা অথবা এর যেকোনো একটির মূল্যের সমপরিমাণ নগদ অর্থ বা ব্যবসার পণ্যের মালিক থাকেন বা হন, তাঁর কোরবানি করা ওয়াজিব। আল্লাহ তাআলা বলেন, ‘সকল সম্প্রদায়ের জন্য আমি কোরবানির বিধান দিয়েছি, তিনি তাদেরকে জীবনোপকরণস্বরূপ যেসব চতুষ্পদ জন্তু দিয়েছেন, সেগুলোর ওপর যেন তারা আল্লাহর নাম উচ্চারণ করে’ (২২: ৩৪)।

কোরবানি হলো একটি ছাগল, ভেড়া, দুম্বা অথবা গরু, মহিষ ও উটের সাত ভাগের এক ভাগ। অর্থাৎ একটি গরু, মহিষ বা উট সাতজন শরিক হয়ে বা সাত নামে কোরবানি করা যায়। বন্য পশু হালাল হলেও কোরবানি করা যাবে না; যদিও তা কেউ লালনপালন করে থাকুক না কেন। কোরবানির জন্য ছাগল, ভেড়া ও দুম্বার বয়স এক বছর হতে হয়; গরু ও মহিষের বয়স দুই বছর এবং উটের বয়স পাঁচ বছর হতে হবে। দুম্বা এক বছর পূর্ণ না হলেও যদি এক বছরের মতো হৃষ্টপুষ্ট হয়, তাহলে চলবে। কোরবানির পশু তরতাজা ও হৃষ্টপুষ্ট হওয়া উত্তম; খুঁত থাকলে সেই পশু দ্বারা কোরবানি আদায় হবে না।

যেকোনো মুসলিম পুরুষ কোরবানির পশু জবাই করতে পারেন। কোরবানির পশু নিজে জবাই করা উত্তম। না পারলে কাউকে দিয়ে জবাই করাতে পারেন। জবাইয়ের সময় উপস্থিত থাকতে পারলে ভালো। জবাইয়ের দোয়া পড়া সুন্নত, না জানলে বা না পড়লেও কোরবানি হয়ে যাবে। জবাইয়ের সময় কোরবানিদাতাদের নাম বলার প্রয়োজন নেই। নিজ গৃহে পালিত পশু দ্বারা কোরবানি করতে পারলে উত্তম। কোরবানির পশু নিজ অর্থে কেনা যায়, যেকোনো কেউ কোরবানির পশু বা এর মূল্য হাদিয়া দিলেও হবে; এতেও ওয়াজিব কোরবানি আদায় হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

20 − 11 =