Templates by BIGtheme NET
১১ ভাদ্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ , ২৬ আগস্ট, ২০১৯ ইং , ২৩ জিলহজ্জ, ১৪৪০ হিজরী
Home » জাতীয় » পুরনো সব ধারণা ভুল প্রমাণ করেছে বাংলাদেশ : টেলিগ্রাফ ইন্ডিয়া

পুরনো সব ধারণা ভুল প্রমাণ করেছে বাংলাদেশ : টেলিগ্রাফ ইন্ডিয়া

প্রকাশের সময়: আগস্ট ৯, ২০১৯, ৯:৪২ অপরাহ্ণ

১৯৭১ সালে বাংলাদেশ ৯ মাসের রক্তক্ষয়ী যুদ্ধের মাধ্যমে স্বাধীনতা অর্জন করেছিল। তখন মার্কিন রাষ্ট্রবিজ্ঞানী ও রাজনীতিবিদ হেনরি কিসিঞ্জার এই দেশকে একটি ‘তলাবিহীন ঝুড়ি’ হিসেবে অ্যাখ্যা দিয়েছেন। যুদ্ধবিধ্বস্ত বাংলাদেশ তখন অর্থনৈতিকভাবে দুর্বল ছিলো। কিন্তু পুরনো সব ধারণাকে ভুল প্রমাণ করতে সক্ষম হয়েছে বাংলাদেশ। এমনটাই মনে করছে টেলিগ্রাফ ইন্ডিয়া।

ভারতীয় গণমাধ্যম টেলিগ্রাফ ইন্ডিয়া’য় প্রকাশিত একটি মতামতধর্মী প্রতিবেদনে সম্প্রতি এসব কথা বলেছেন দেবদীপ পুরোহিত।

দেবদীপ বলেন, ভারতের সংসদে দেশটির স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী নিত্যনন্দ রাই বলেছেন-২০১৯ সালের প্রথম ছয় মাসে অবৈধ অনুপ্রবেশের দায়ে ৪৯৭ বাংলাদেশিকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এর মধ্যে ৩৭৯ জনকেই গ্রেফতার করা হয় বাংলা সীমান্ত থেকে। যেখানে, পশ্চিম বাংলা, আসাম, মেঘালয়, মিজোরাম এবং ত্রিপুরা সীমান্তে ২০১৪ সালে গ্রেফতার অবৈধ অনুপ্রবেশকারী বাংলাদেশির সংখ্যা ছিল ২,৪৫৫ জন। যদিও অবৈধ অনুপ্রবেশকারী সঠিক সংখ্যা নিরূপণ অসম্ভব। তারপরও বাংলাদেশ থেকে অবৈধ অনুপ্রবেশের সংখ্যা উল্লেখযোগ্য হারে কমেছে। এর কারণ হচ্ছে, বাংলাদেশের অর্থনৈতিক উন্নয়ন।

দেবদীপ বলেন, বাংলাদেশের অর্থনৈতিক অবস্থা আগের থেকে অনেক ভাল। এশিয়া উন্নয়ন ব্যাংকের তথ্যানুযায়ী, বর্তমানে দেশটির জিডিপি ৮ শতাংশে উন্নীত হয়েছে। আর ২০২০ সাল নাগাদ এই দেশের মাথাপিছু আয় ৬.৬ শতাংশে উন্নীত হবে বলে আশা করা হচ্ছে। সুতরাং হেনরি কিসিঞ্জারের সেই ‘তলাবিহীন ঝুড়ি’ উক্তিটি এখন বাংলাদেশের ক্ষেত্রে অসার।

ভারতীয় এই লেখক তার লেখায় বাংলাদেশের দুইজন ব্যক্তির মতামত তুলে ধরেন। যার মধ্যে প্রথম ব্যক্তি গুলশানে রিকশা চালাতেন। এক দশক আগে তিনি ভারতের পশ্চিমবঙ্গে অবৈধভাবে অনুপ্রবেশ করে সেখানে রিকশা চালিয়েছেন। কিন্তু তার ভাগ্যের চাকা ঘুরাতে পারেননি। নিরাশ হয়ে স্বদেশে ফিরেন। ওই রিকশা চালকের ভাষায়, জীবিকার জন্য তিনি আর কোনদিনও ভারতে যাবেন না। বর্তমানে তিনি রিকশা চালিয়ে আট ঘণ্টায় ৮০০ থেকে ১০০০ টাকা আয় করেন।

দ্বিতীয় ব্যক্তি ঢাকার একজন উবার চালক। তিনি বলেন, তিনি বেশ কয়েকবার কলকাতা ভ্রমণ করেছেন। সেখানে তিনি গরীব অনেকের সঙ্গেই কথা বলেছেন। তারা জানিয়েছেন- পশ্চিমবঙ্গে সারাদিন পরিশ্রম করে ১০০ রুপি আয় করাই কষ্ট। অথচ বাংলাদেশের প্রত্যন্ত অঞ্চল দিনাজপুরেও দৈনিক হাজিরায় ৭০০ টাকা দিয়েও একজন শ্রমিক পাওয়া কষ্টসাধ্য ব্যাপার।

দেবদীপ তার নিবন্ধে বলেছেন, এসব তথ্য এটাই প্রমাণ করে গরীব বাংলাদেশিরা এখন আর অবৈধভাবে ভারতে অর্থ আয়ের জন্য যান না। সুতরাং বাংলাদেশকে নিয়ে আগের ধারণাগুলো ভুল।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

two × 3 =