Templates by BIGtheme NET
৫ শ্রাবণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ , ২০ জুলাই, ২০১৯ ইং , ১৬ জিলক্বদ, ১৪৪০ হিজরী
Home » জাতীয় » ‘হত্যাকাণ্ড ও শিশু ধর্ষণের মতো অমানবিক ঘটনাগুলো আমাদের বিবেককে নাড়া দেয়’

‘হত্যাকাণ্ড ও শিশু ধর্ষণের মতো অমানবিক ঘটনাগুলো আমাদের বিবেককে নাড়া দেয়’

প্রকাশের সময়: জুলাই ১১, ২০১৯, ৪:৫৮ অপরাহ্ণ

নিউজ ডেস্ক :

শিশু ধর্ষণের মতো অমানবিক ঘটনাগুলো আমাদের বিবেককে নাড়া দেয় বলে মন্তব্য করেছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল।

বৃহস্পতিবার (১১ জুলাই) স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে বাংলাদেশ সেক্রেটারিয়েট রিপোর্টার্স ফোরামের (বিএসআরএফ) নেতাদের সঙ্গে মতবিনিময় সভায় সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এ মন্তব্য করেন। বিএসআরএফের সভাপতি তপন বিশ্বাস ও সাধারণ সম্পাদক শামীম আহমেদের নেতৃত্বে ২১ সদস্যের প্রতিনিধিদল সভায় অংশ নেয়।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘হত্যাকাণ্ড ও শিশু ধর্ষণের মতো অমানবিক ঘটনাগুলো আমাদের বিবেককে নাড়া দেয়। দেশের সামাজিক শাসন ক্ষয়ে গেছে। সামাজিক মূল্যবোধ কমে গেছে। এগুলো রোধ করতে পারলে, আমরা কিছুটা ফল পাবো। যেমন, ছোটবেলায় দেখেছি, এ ধরনের ঘটনা ঘটলে গ্রামে বিচার হতো। এখন আর সেটা হয় না। সামাজিক বিচারব্যবস্থা উঠে গেছে। তবে আমরা অপরাধীকে ধরে এনে আইনের হাতে তুলে দিচ্ছি; এটাই আমাদের প্রধান কাজ। এক্ষেত্রে আপনাদেরও (সাংবাদিকদের) ভূমিকা আছে। সংবাদমাধ্যম অনেক শক্তিশালী, সংবাদিকরা যদি লেখনীতে এগুলো তুলে আনেন, তবে আমরা সামাজিক অবক্ষয় থেকে মুক্তি পাবো।’

আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেন, ‘সমাজের শুরু থেকেই অনাচার ছিল। শুধু বাংলাদেশ নয়, সমগ্র পৃথিবীতেই এটা হচ্ছে। এর জন্য সবাইকে এগিয়ে আসতে হবে।’

অপরাধীদের বিচার বিলম্বের বিষয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, ‘মামলাজটের কারণে বিচার বিলম্বিত হচ্ছে।’

দুর্বল চার্জশিটের কারণে অপরাধীরা পার পেয়ে যাচ্ছে, এমন অভিযোগের বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘চার্জশিট যাতে নির্ভুল হয়, সেজন্য পুলিশকে প্রশিক্ষণ দেওয়া হচ্ছে। পিবিআই, সিআইডি গঠন করা হচ্ছে।’

সাংবাদিকদের অপর এক প্রশ্নের জবাবে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘ডিআইজি মোজ্জাম্মেল হকের ঘটনা আমি শুনেছি। তার সম্পর্কে অভিযোগগুলো আমাদের কানে এসেছে। বিষয়গুলো নিয়ে তদন্ত শুরু হয়েছে। ঘটনার সঙ্গে জড়িত থাকার প্রমাণ মিললে আপনারা সঠিক বিচার দেখতে পাবেন।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

four × four =