Templates by BIGtheme NET
২ কার্তিক, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ , ১৭ অক্টোবর, ২০১৯ ইং , ১৬ সফর, ১৪৪১ হিজরী
Home » খেলাধূলা » ক্রিকেট বিশ্বকাপ ২০১৯ » বিশ্বকাপ নিয়ে কপিল দেবের মূল্যায়ন : বাংলাদেশ পজিটিভ ছিলো কিন্তু আক্রমনাত্মক ছিল না

বিশ্বকাপ নিয়ে কপিল দেবের মূল্যায়ন : বাংলাদেশ পজিটিভ ছিলো কিন্তু আক্রমনাত্মক ছিল না

প্রকাশের সময়: জুলাই ১০, ২০১৯, ১:৪৬ অপরাহ্ণ

ইতিহাসের পাতায় স্মরণীয় হয়ে থাকবে এবারের ইংল্যান্ড ক্রিকেট বিশ্বকাপ ২০১৯। কারণ এ বিশ্বকাপে সারা বিশ্বের মানুষ এক নতুন বাংলাদেশকে আবিষ্কার করেছে। একের পর এক শক্তিশালী দলকে হারিয়ে সকলের মন জয় করে নিয়েছেন সাকিব, মুশফিকরা।

সেমিতে খেলার স্বপ্ন ভঙ্গ হলেও বিশ্বকাপে টাইগারদের একের পর এক পারফরম্যান্সে মুগ্ধ হয়েছেন বর্তমান থেকে শুরু করে সাবেক ক্রিকেট বোদ্ধারা। তাইতো বিশ্বকাপ থেকে ছিটকে যাওয়ার পরও ভারতের সাবেক ক্রিকেটার কপিল দেব মেতেছেন টাইগারদের প্রশংসার বন্দনায়। তার মতে, এবারের বিশ্বকাপে বাংলাদেশই একমাত্র দল যারা নিজেদের খেলাটাকে উপরে নিয়ে গেছে আগের সময়ের তুলনায়।

৯ জুলাই বিশ্বকাপের প্রথম সেমিফাইনালে ম্যানচেস্টারের ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে ভারত নিউজিল্যান্ডের যখন খেলা চলছিলো, ঐ সময় গ্যালারীতে বসে ছিলেন কপিল দেব। সেখানে উপস্থিত ছিলেন এক বাংলাদেশি সাংবাদিকও। তাকে দেখে ওই সাংবাদিক যখন বাংলাদেশ প্রসঙ্গে কথা বলতে চাইলেন, তখন দেখা গেল দারুণ আগ্রহী ছিলেন কপিল দেবও। আর একে একে বাংলাদেশের পারফরম্যান্সের কথা ব্যক্ত করেন।

প্রশংসা করে তিনি বলেন, বাংলাদেশ সত্যিই দারুণ খেলেছে। বিগত সব বিশ্বকাপ থেকে এবার বাংলাদেশ অনেক ভালো খেলেছে। যে আর কোনো দল খেলতে পারেনি। আমার কাছে এটাকে দারুণ ব্যাপার মনে হয়। নতুন একটা দল যখন এগিয়ে যায়, তখন সেটা ক্রিকেটের জন্যই উল্লেখযোগ্য একটা ব্যাপার।

তিনি বলেন, এই বিশ্বকাপে সাকিব অসাধারণ খেলেছে। ব্যাটসম্যান হিসেবে সে ১ নম্বর হওয়ার প্রতিযোগিতা করছে। বোলিংয়ে তো ও সব সময়ই ভালো। অলরাউন্ডার হিসেবেই সে অসাধারণ খেলে গেছে। আরো দারুণ লাগল সাকিব বাংলাদেশের বলে। কারণ বিশ্বকাপে এরকম নতুন একটি দেশের কোনো খেলোয়াড় সর্বোচ্চ উচ্চতায় গেলে পুরো দলের জন্যই তা দারুণ ব্যাপার।

শুরুতে ভালো খেলেও কোন ঘাটতির কারণে বাংলাদেশ সেমিফাইনালে যেতে পারলো না সাংবাদিকের এমন প্রশ্নের জবাবে কপিল দেব বলেন, আমি সব সময় বলি দলটা এখন আগের চেয়ে অনেক বেশি আত্মবিশ্বাসী। ১০ বছর আগে তারা যে রকম ছিল, তার চেয়ে এখন অন্য রকম। তবে এর পরও যদি জানতে চাও, তাহলে বলতে পারি বাংলাদেশ পজিটিভ ছিল; কিন্তু আক্রমণাত্মক ছিল না। কখনো কখনো খেলোয়াড়দের আক্রমণাত্মক হতে হবে। না হলে সবার কাছে প্রেডিক্টেড হয়ে যাবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

ten − two =