Templates by BIGtheme NET
৫ শ্রাবণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ , ২০ জুলাই, ২০১৯ ইং , ১৬ জিলক্বদ, ১৪৪০ হিজরী
Home » জাতীয় » আর পোষা যাবে না কুকুর !

আর পোষা যাবে না কুকুর !

প্রকাশের সময়: জুলাই ৮, ২০১৯, ৮:২২ অপরাহ্ণ

সেই আদিমকাল থেকে গৃহপালিত প্রাণীর মধ্যে কুকুরের সঙ্গে মানুষের একটি ভালো বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক রয়েছে। বিশ্বস্ত ও প্রভুভক্ত হওয়ার কারণে কুকুরের সুখ্যাতি রয়েছে যুগ যুগ ধরে। পাশ্চাত্য দেশে এবং তাদের সমাজে কুকুরের অনেক কদর রয়েছে। কিন্তু এখন আমাদের দেশেও বেশ কুকুর পালন করতে দেখা যায়। শুধুমাত্র উচ্চবিত্ত নয়, মধ্যবিত্তদের মাঝেও বিভিন্ন জাতের দেশি বিদেশি কুকুর পালন করতে দেখা যায়।

তবে কুকুরের প্রতি অনীহা কিংবা কুকুরে বিরক্ত হওয়া মানুষের সংখ্যাও কম নয় আমাদের দেশে। অনেকে ভয় পেয়ে বিরক্ত হয়ে এই প্রাণিটিকে শিকলে বেঁধে রাখে। কিংবা বেধরক পিটিয়ে মেরে ফেলে। অনেকে আবার জ্যান্ত মাটি চাঁপা দিতেও শোনা গিয়েছে। অবেশেষে অবলা এই প্রাণীর সুরক্ষায় কঠোর আইন করছে সরকার।

জানা গেছে, কুকুরকে মারাতো দূরের কথা, তাকে চলাফেরার সুযোগ না দিয়ে একটানা ২৪ ঘণ্টা বেঁধে রাখলে তা নিষ্ঠুরতা হিসেবে গণ্য হবে। এই অপরাধের জন্য ছয় মাসের জেলের পাশাপাশি ১০ হাজার টাকা জরিমানার বিধান করা হয়েছে। ৭ জুলাই বিলটি সংসদে মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী আশরাফ আলী খান খসরু প্রস্তাব করলে কণ্ঠভোটে তা পাস হয়।

বিলে বলা হয়েছে, কর্তৃপক্ষের অনুমতি গ্রহণ ছাড়া কোনও প্রাণীকে দৈহিক কলাকৌশল প্রদর্শনের জন্য প্রশিক্ষণ বা দৈহিক কসরৎ প্রদর্শনের জন্য ব্যবহার  করা যাবে না। কিংবা কেউ যদি বাসায় শখের বশে কুকুর পালন করতে চায় তাহলেও কর্তৃপক্ষের অনুমতি লাগবে। তবে প্রতিরক্ষা বাহিনী, বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ, পুলিশ, আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনী ও কোস্টগার্ডের ক্ষেত্রে এই বিধান প্রযোজ্য হবে না।

এছাড়া নিবন্ধন ছাড়া বাণিজ্যিক উদ্দেশ্যে পোষা প্রাণী উৎপাদন এবং ওই উদ্দেশ্যে কোনও খামার স্থাপন ও পরিচালনা করার উপরও নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে। তবে খাদ্য হিসেবে ব্যবহারের জন্য প্রাণী জবাইয়ের সময় ও ধর্মীয় উদ্দেশ্যে উৎসর্গের সময় যে কোনও ধর্মালম্বী ব্যক্তি কর্তৃক নিজস্ব ধর্মীয় আচার অনুযায়ী কোনও কার্যক্রম গ্রহণ করা হলে তাকে নিষ্ঠুরতা হিসেবে গণ্য করা হবে না।

উল্লেখ্য, ১৯২০ সালের পশুর প্রতি নিষ্ঠুরতা নিরোধ আইনে বিভিন্ন অপরাধের জন্য তিন মাসের জেল এবং এক হাজার টাকা জরিমানা করা হতো। তবে তা বাতিল করে নতুন আইন করতে বিলটি পাস করা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

two + five =