Templates by BIGtheme NET
১২ আষাঢ়, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ , ২৬ জুন, ২০১৯ ইং , ২২ শাওয়াল, ১৪৪০ হিজরী
Home » বিজ্ঞান- প্রযুক্তি » ভেবে দেখুন, আপনিও কি এই রোগে আক্রান্ত?

ভেবে দেখুন, আপনিও কি এই রোগে আক্রান্ত?

প্রকাশের সময়: মে ২১, ২০১৯, ১০:৩৭ অপরাহ্ণ

আপনি কি বারবার হাত ধুতে অভ্যস্ত? যেকোনো কাজ বার করেন? ঘরের দরজাটা লাগিয়েছেন কিনা বা গ্যাসের চুলাটা বন্ধ করা আছে কিনা বারবার পরীক্ষা করে দেখেন? কোনো কাজই কি আপনার মনমতো হয় না? যদি তাই হয় তাহলে আপনি OCD তে আক্রান্ত।

OCD বা অবসেসিভ কম্পালসিভ ডিজঅর্ডার ( Obsessive Compulsive Disorder) এক ধরনের মানসিক সমস্যা। বাংলায় একে শুচিবাই বলা হয়ে থাকে।

বিজ্ঞানীরা মনে করেন, মস্তিষ্কের যে অংশটি বিচার-বিবেচনা ও বিভিন্ন পরিকল্পনা নিয়ন্ত্রণ করে এবং যে অংশটি শরীরের বিভিন্ন অংশ নড়াচড়া করার নির্দেশ প্রদান করে, তাদের মধ্যে যোগাযোগের সমস্যার কারণে OCD সৃষ্টি হয়।

OCD আক্রান্ত ব্যক্তির ক্ষেত্রে মস্তিষ্ক ভুল সংকেত প্রেরণ করতে থাকে। বিনা কারণে বিপদ সংকেত পাঠাতে থাকে। কোনো নির্দিষ্ট কাজ বারবার করতে সে তখন বাধ্য হয়ে পড়ে। যতই চেষ্টা করুক এখান থেকে বের হয়ে আসতে পারে না।

OCD আক্রান্ত ব্যক্তির মধ্যে এক ধরনের আচ্ছন্নতা কাজ করে। সে বুঝতে পারে না, সে যা করছে তা কেন করছে। শুধু জানে যে তাকে করতে হবে। একটা ঘোরের মধ্যে সে তার কাজকর্ম পরিচালনা করে। আর তার চাইতে বড় বিষয় কম্পালশন বা বাধ্যবাধকতা। কোনো অদৃশ্য শক্তি আক্রান্ত ব্যক্তিকে একটি নির্দিষ্ট অনুভূতিতে সাড়া দিতে বাধ্য করতে থাকে। যেকোনো কাজ অসংখ্যবার করার প্রবণতা লক্ষ্য করা যায়।

জীবনের যেকোনো সময়ই একজন শুচিবাইগ্রস্ত হয়ে পড়তে পারেন। আক্রান্ত ব্যক্তি বিভিন্ন সামাজিক অনুষ্ঠানে সহজে যোগদান করতে পারে না, মানুষের সাথে মুক্তভাবে সাক্ষাৎ করতে পারে না। মানুষের তাকে ভুল বুঝতে শুরু করে। এক সময় সকলের থেকে আলাদা হয়ে ব্যাক্তিটি নিঃসঙ্গ হয়ে পড়ে। বন্ধু-বান্ধব ও কাছের মানুষ বিষয়টিকে আরও বিব্রতকর করে তোলে।

 

বর্তমানে এই জটিল সমস্যার যথেষ্ট ভালো চিকিৎসার সুযোগ আছে। ওষুধ প্রয়োগ আর মনঃসমীক্ষণ, দুই উপায়েই OCD’র চিকিৎসা সম্ভব। তবে সবচেয়ে বড় লড়াই হলো নিজের লড়াই। মনসম্পর্কিত যেকোনো সমস্যায় সবচেয়ে কার্যকরী হলো মনের সাথে বোঝাপড়া। নিজের মনকেই যুক্তি দিয়ে বোঝানোই এর বড় সমাধান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

twelve − eleven =